“চুক্তিপত্র দেখলে এমনটা করত না”, সমর্থকদের বিক্ষোভের পর বললেন দেবব্রত সরকার

0
298

কলকাতা: বুধবার রণক্ষেত্র লেসলি ক্লডিয়াস সরণীতে। নিজেদের মাতৃসম ক্লাবকে বাঁচানোর উদ্দেশ্যেই বুধবার ইস্টবেঙ্গল সমর্থকদের একদল ক্লাবকর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাচ্ছিল। বিক্ষোভ হবে জেনেই আগে থেকেই ক্লাব চত্বরে মোতায়েন ছিল বিশাল পুলিশ বাহিনী। তবে ইস্টবেঙ্গল সমর্থকদের এই বিক্ষোভ যেন কাজে আসল না। লড়াই হয়েছে দুই গোষ্ঠীর, হাতাহাতিও বাধল।

দুপুর ৩ টের বেশ কিছু আগেই ক্লাবের সামনে জড়ো হয়েছিল সমর্থকরা। সেই সঙ্গে হাজির ছিলেন ক্লাবকর্তাদের ঘনিষ্ঠ সমর্থকেরাও। সমর্থকদের বিক্ষোভ জারি ছিল, এরপর পুলিশ লাঠিচার্জ করতে শুরু করলে ফাঁকা হয়ে যায় রাস্তা। তারপর সন্ধ্যেবেলায় ক্লাবে এসে সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেন ইস্টবেঙ্গলের শীর্ষকর্তা দেবব্রত সরকার।

- Advertisement -

“আমাদের সমর্থক, মনে হয় পদ্ধতিগত কোনও ভুল আছে। তাদের যদি কোনও বক্তব্য থাকত তাহলে তারা অফিসিয়ালি ক্লাবে এসে তাদেএ বক্তব্য জানাতে পারত। আমরা ২২ মার্চ বলেছি সাংবাদিক, ক্লাবের প্রাক্তন খেলোয়াড়, যে কোনও সভ্য সমর্থক এবং কোনও গুণীব্যক্তি ক্লাবে এসে চুক্তিপত্র দেখতে পারে। চুক্তিপত্র দেখে মন্তব্য করলে ভালো হত। দেখেনি বলেই এই কাজটা করেছে, দেখলে এই কাজটা করত না।”

আরও পড়ুন- এই প্রিয় মানুষকেই আরও একবার জড়িয়ে ধরতে চান ‘মসিহা’ সোনু

তবে নিতু সরকার স্পষ্ট জানালেন তিনি বা ইস্টবেঙ্গল ক্লাভ সমর্থকদের বিরুদ্ধে পুলিশে কোনও অভিযোগ দায়ের করেনি। তিনি বলেন, “কার বিরুদ্ধে অভিযোগ করব? সবাই তো ইস্টবেঙ্গলের সমর্থক।” করোনা বিধি নিষেধ না মেনেই চলে লাল-হলুদ সমর্থকদের বিক্ষোভ জারি ছিল। গ্রেফতার করা হয় বেশ কয়েকজন সমর্থককে। আহত হওয়ায় অ্যাম্বুলেন্সে করে নিয়ে যাওয়া হয় কয়েকজন সমর্থককে।