মইনপুরী লোকসভা কেন্দ্রে জিততে বাবা ‘নেতাজির’ নামে স্ত্রী ডিম্পল যাদবের হয়ে ভোট চাইলেন অখিলেশ

0
20

লখনউ: চলতি বছরে কয়েকমাস আগেই প্রয়াত হয়েছেন সমাজবাদীর পার্টির প্রতিষ্ঠাতা মুলায়ম সিং যাদব। তাঁর মৃত্যুর পরেই মইনপুরী লোকসভা কেন্দ্র ফাঁকা হয়ে যায়। সেই আসনেই হবে উপনির্বাচন। মইনপুরী কেন্দ্রে লড়বেন সমজাবাদী পার্টির প্রধান অখিলেশ যাদবের স্ত্রী ডিম্পল যাদব। এই আসন নিজেদের হাতে রাখতেই প্রচারের ময়দানে নেমেছেন অখিলেশ যাদব। বাবার পরিচিতিকে সামনে রেখেই স্ত্রীর হয়ে ভোট চাইতে দেখা গেল সপা প্রধানকে।

প্রাক্তন লোকসভা সাংসদ, অখিলেশ যাদবের স্ত্রী ডিম্পল যাদব দলীয় প্রার্থী। তাঁকে জেতাতেই সমাজবাদী পার্টির প্রধান প্রতি তিন থেকে চার কিলোমিটারে একটি ছোট জনসভার মাধ্যমে মইনপুরী লোকসভা উপনির্বাচনে দলকে জেতাতে নেতৃত্ব দিচ্ছেন। দীর্ঘ কনভয়টি যখন মইনপুরীর কাছে একটি রাজ্য সড়ক দিয়ে পথ দিয়ে যাত্রা করছিল সেই সময়ে দলের সমর্থকরা মালা দেওয়া নেতাজির প্রতিকৃতি নিয়ে দাঁড়িয়েছিল। এই প্রসঙ্গে জানিয়ে রাখা ভাল যে, মুলায়ম সিং যাদব ভারতীয় রাজনীতিতে ‘নেতাজি’ নামে ব্যপক ভাবে পরিচিত। যার এই কেন্দ্র জয়ের রেকর্ডও রয়েছে। সেই ভূমিকাকেই কাজে লাগাতে চাইছেন অখিলেশ যাদব। সপা প্রধান মইনপুরী লোকসভা কেন্দ্রের ভোটারদেড় থেকে ”নেতাজি”-এর নামে ভোট চেয়েছিলেন। অখিলেশ প্রচারের সময় বলেছেন, “এটি নেতাজির বাড়ি, তাঁর এলাকা। মইনপুরীর মানুষ নেতাজিকে তিনি যা ছিলেন সেটাই বানিয়েছেন। আমি নিশ্চিত যে এখানে প্রতিটি ভোট হবে নেতাজির নামে পড়বে।”

- Advertisement -

আরও পড়ুন- উলটপুরাণ, গুজারাট নির্বাচনের আগে বিজেপি ছেড়ে ছেলেকে নিয়ে কংগ্রেস যোগ রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রীর

তবে সমাজবাদী পার্টির প্রধান হিসাবে এই নির্বাচন তাঁর জন্য একটি মর্যাদার লড়াই কিনা জানতে চাইলে অখিলেশ প্রশ্নের উত্তর এড়িয়ে গিয়েছেন। জানিয়ে রাখা ভাল, দলটি আজমগড়ের সাম্প্রতিক উপনির্বাচনে হেরেছে সপা। দীনেশ লাল যাদব, একজন ভোজপুরি চলচ্চিত্র তারকা, অখিলেশ যাদবের ভাই ধর্মেন্দ্র যাদবকে পরাজিত করেছেন, যিনি সমাজবাদী পার্টির প্রার্থী ছিলেন। যদিও অখিলেশ যাদব একবারও এই আসনে প্রচার করেননি। মইনপুরীতে, বিজেপি ঈ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে মুলায়ম সিং যাদবের জয়ের ব্যবধান অনেকটা কমিয়ে দিয়েছে। আগামী ৫ ডিসেম্বর হবে ভোটগ্রহণ। ফলপ্রকাশ হবে ৮ ডিসেম্বর। মুলায়ম সিং যাদবের পুত্রবধূ আসন দখলে রাখতে পারেন কিনা সেটাই এখন নজর রাখার বিষয়।