এই বিশেষ ৯০ মিনিট ফর্মে ফিরিয়ে দিল বিরাটকে

0
22

স্পোর্টস ডেস্ক: রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর বৃহস্পতিবার তাদের শেষ লিগ ম্যাচে গুজরাট টাইটানসকে 8 উইকেটে হারিয়ে প্লে অফের আশা বাঁচিয়ে রেখেছে। এই ডু অর ডাই ম্যাচে রান মেশিন বিরাট কোহলির ব্যাট গর্জে ওঠে। গুজরাট টাইটান্সের বোলারদের রীতিমতো শাসন করল কোহলিএ ব্যাট। সম্প্রতি আইপিএল ২০২২ -এ খারাপ ফর্মের সঙ্গ্ব লড়াই করছিলেন তিনি। হার্দিক পাণ্ডিয়ার দলের বিরুদ্ধে ৭৩ রানের ম্যাচ জেতানো ইনিংস খেললেন। এই ইনিংসের জন্য ম্যান অব দ্য ম্যাচের পুরস্কারও পেলেন কোহলি।

২০২০ সালের পর এটাই কোহলির প্রথম ম্যান অফ দ্য ম্যাচ পুরস্কার। কোহলি ম্যাচের ৯০ মিনিটের কথা উল্লেখ করেছেন যা তাকে ফর্মে ফিরতে সাহায্য করেছিল। ম্যাচের পর কোহলি বলেছেন, “এটি আমাদের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ খেলা ছিল, দলের জন্য আমি কিছু করতে পারিনি বলে আমি অসন্তুষ্ট ছিলাম। পরিসংখ্যানের চেয়ে এটি আমাকে বেশি বিরক্ত করছিল। আজ এমন একটি খেলা ছিল যেখানে আমি দলের হয়ে অবদান রেখেছি, একটি প্রভাব ফেলেছি। দলকে ভালো অবস্থানে নিয়ে গিয়েছি। পারফরম্যান্সের কারণে আপনার কাছে প্রত্যাশা তৈরি হয়েছে।”

আরও পড়ুন: ভারতের ইতিহাসে ক্রিকেট চর্চা

তিনি আরও বলেন, “আপনাকে মনোভাব ঠিক রাখতে হবে। প্রত্যাশা অনুযায়ী চলতে গিয়ে আপনি প্রক্রিয়াটি ভুলে যেতে পারেন। আমি সত্যিই কঠোর পরিশ্রম করেছি। গতকাল নেটে ৯০ মিনিটের জন্য ছিলাম।” বিরাট কোহলি আইপিএল ২০২২ -এ মাত্র দুটি হাফ সেঞ্চুরি করেছেন। এই দুটিই এসেছে গুজরাট টাইটান্সের বিপক্ষে। এর আগে এই দলের বিপক্ষে ৫৮ রানের ইনিংস খেলেছিলেন কোহলি। খেলার কথা বললে, প্রথমে ব্যাট করতে গিয়ে অধিনায়ক হার্দিক পাণ্ডিয়ার হাফ সেঞ্চুরির সাহায্যে গুজরাট টাইটান্স ১৬৮ রান করে। এই রান তাড়া করতে নেমে কোহলি (৭৩) এবং দ্যু প্লেসিস (৪৪) প্রথম উইকেটে ১১৪ রানের পার্টনারশিপ গড়েন। এরপর ১৮ বলে ৪০ রানের ইনিংস খেলে রান তাড়া করেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। আরসিবি ৮ বল বাকি থাকতে ম্যাচ জিতে যায়।