শুভেন্দু গড়ে নির্দল কাউন্সিলরকে মারধর, প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগ

0
426

মিলন পণ্ডা, কাঁথি: ওয়ার্ডবাসীর সমস্যা নিয়ে চেয়ারম্যানের সঙ্গে আলোচনা করতে গিয়ে মার খেলেন এক নির্দল কাউন্সিলর৷ অভিযোগ, চেয়ারম্যানের উপস্থিতিতে মারধর করা হয় ওই নির্দল কাউন্সিলরকে৷ মঙ্গলবার সন্ধ্যের এই ঘটনার জেরে তীব্র উত্তেজনা ছড়িয়েছে কাঁথি পুরসভায়৷ এখানেই বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর বাড়ি। স্বভাবতই, শাসক তৃণমূলের ‘গুন্ডামি’ ঘিরে তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়৷

প্রহৃত নির্দল কাউন্সিলর সুময় দাস বলেন, “এলাকার মানুষের দাবি-দাওয়া নিয়ে পুরপ্রধানের কাছে গিয়েছিলাম। তখনই পরাজিত তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী তরুণ বেরা অনুগামীদের নিয়ে এসে আমাকে মারধর করে। শুধু তাই নয় আমাকে প্রাণনাশের হুমকি দেয়। মিথ্যা মামলায় ফাঁসিয়ে দেওয়ার হুমকি দেয়। পুরো ঘটনাটি ঘটেছে পুরপ্রধানের সামনে৷ তাঁর মদত না থাকলে কি করে এমন ঘটনা ঘটে?’’ স্বাভাবিকভাবে, পুরসভার ভিতরে জনপ্রতিনিধির ওপর হামলার ঘটনায় প্রশ্নের মুখে জনপ্রতিনিধিদের নিরাপত্তা৷ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে কাঁথি থানার পুলিশ৷ উত্তেজনা থাকায় এখনও সেখানে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে৷ নির্দল কাউন্সিলরকে মারধরের সত্যতা স্বীকার করে নিলেও এই বিষয়ে তাঁর মদতের অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন পুরপ্রধান সুবল মান্না৷

বস্তুত, কাঁথি পুরসভা কার্যত প্রেস্টিজ ফাইট! সেখানেই বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর বাড়ি। কাঁথি পুরসভা ২১ টি ওয়ার্ডের মধ্যে তৃনমূল কংগ্রেস ১৭ টি জয়লাভ করে। ৩টি আসনে জয়লাভ করে বিজেপি। বাকি একটি আসলে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী তরুণ কুমার বেরাকে হারিয়ে জয়লাভ করেন একমাত্র নির্দল প্রার্থী সুময় দাস। এলাকার বাসিন্দাদের দাবি দাওয়া নিয়ে মঙ্গলবার বিকালে পুরসভার পুরপ্রধান সুবল মান্নার কাছে হাজির হন জনপ্রতিনিধি সুময় দাস।

তাঁর অভিযোগ, তাকেই অন্ধকারে রেখেই কাজকর্ম করছেন পুরপ্রধান। এই নিয়ে বাকবিতন্ডা চলাকালীন সেখানে পুরপ্রধানে রুমে হাজির হয় হেরো তৃনমূল প্রার্থী তরুণ কুমার বেরা সহ বেশ কয়েকজন দৃষ্কৃতী৷ তারাই পুরপ্রধানের সামনে কাউন্সিলর সুময় দাসকে বেধড়ক মারধর করে বলে অভিযোগ। সুময়ের দাবি, ‘‘তরুণ কুমার বেরা ভোটের আগে টাকার বিনিময় বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে এসেছিল। উনি দীর্ঘদিনের শুভেন্দু অধিকারী অনুগামী ছিল। পুলিশ সঠিকভাবে তদন্ত করলেই আসল সত্য সামনে আসবে৷’’ যদিও তৃণমূল বা বিজেপির স্থানীয় নেতাদের কোনও প্রতিক্রিয়া এই বিষয়ে এখনও মেলেনি৷

আরও পড়ুন: এভাবেও বিদ্যুৎ চুরি হয়, ছাত্রের মৃত্যুর পর নড়েচড়ে বসল পুর নিগম