উচ্ছেদের জন্য ১০ লাখ, জমি দখলের জন্য ৩০ লাখ! মন্ত্রীর নামে পোস্টার ঘিরে চাঞ্চল্য

0
87

খাস প্রতিবেদন: বিতর্ক যেন কিছুতেই পিছু ছাড়ছে না। এবার বিধায়ক মন্ত্রী মনোজ তিওয়ারির বিরুদ্ধে পড়ল পোস্টার। হাওড়া পুরনিগমের গেটের বাইরে এদিন ওই পোস্টার কে ঘিরে ছড়িয়ে পড়ে চাঞ্চল্য। পরে সেগুলি খুলে ফেলা হয় বলে জানা গেছে।

কি রয়েছে পোস্টারে? পোস্টারে রয়েছে বিভিন্ন বেআইনি কাজের প্রাইস লিস্ট। যেমন, বাড়ি থেকে উচ্ছেদের জন্য ১০ লাখ টাকা! জমি দখলের জন্য ৩০ লাখ টাকা! বেআইনি বাড়ি নির্মাণের জন্য প্রতি তলা ১০ লাখ টাকা, ইত্যাদি লেখা ছিল ব্যানার পোস্টারে। অভিযোগ, এভাবেই বেআইনি কারবার চালাচ্ছেন বিধায়ক মন্ত্রী। পোস্টারের নিচে লেখা হাওড়া জেলা গণতান্ত্রিক নাগরিক বৃন্দ। তবে কে বা কারা এই ব্যানার লাগিয়েছে তা অবশ্য জানা যায়নি।

- Advertisement -

হাওড়া পুরনিগমের নিরাপত্তা কর্মীরা জানিয়েছে, রাতে কে কখন এই পোস্টার, ব্যানার লাগিয়েছে তা জানা যায়নি। খবর পাওয়া মাত্রই হাওড়া থানার পুলিশে খবর দেওয়া হয়। পুলিশ পৌঁছে যায় ঘটনাস্থলে। দুটি ব্যানার খুলে দেওয়া হয়। রাজ্যের মন্ত্রী তথা শিবপুরের বিধায়ক মনোজ তিওয়ারির বিরুদ্ধে এই ব্যানার পোস্টার নিয়ে প্রশ্ন করা হলে হাওড়া জেলা সদর তৃণমূল কংগ্রেসের সহ সভাপতি সুরজিৎ সাহা বলেন, “এটা বিরোধীদের অপপ্রচার ছাড়া কিছু নয়। আমাদের দল এই শিক্ষা দেয় না যে দলের নেতার বিরুদ্ধে মন্ত্রীর বিরুদ্ধে জনসমক্ষে কিছু মন্তব্য করা বা এই ধরনের অপপ্রচার করা। আমরা আমাদের যা কিছু অভিযোগ সেটা দলের মধ্যেই আলোচনা করি। এটা বিরোধীদের কাজ।”

একই সঙ্গে তিনি বলেন, আর যে অভিযোগগুলো আনা হয়েছে মন্ত্রীর বিরুদ্ধে সেটা আগে প্রমাণ হোক। সেটা প্রমাণসাপেক্ষ বিষয়। দল নিশ্চয়ই বিষয়টা দেখবে। যদি অভিযোগ সত্যি প্রমাণ হয় তাহলে এর বিরুদ্ধে দল ব্যবস্থা নেবে। আর যদি এটা না প্রমাণিত হয় তাহলে বুঝতে হবে এটা বিরোধীদের অপপ্রচার ছাড়া কিছু ছিল না। অভিযোগ উড়িয়ে ঘটনার নেপথ্যে শাসকদলের গোষ্ঠী কোন্দল দেখছে গেরুয়া শিবির। পোস্টার কাণ্ডে মন্ত্রী মশাইয়ের অবশ্য কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি।

আরও পড়ুন: এবার ধেড়ে ইঁদুর! কালীঘাটের কাকু গ্রেফতার হতেই মুড়ি বাদাম হাতে CGO তে কি করল বিজেপি?

আরও পড়ুন: জুন মাসে বাংলাজুড়ে ‘ঘাম’ ঝরাবে বিজেপি, নেতৃত্বে সেই ত্রয়ী