ইট দিয়ে মুখ থেঁতলে পুলিশ কর্মীকে হত্যার চেষ্টা, প্রশ্নের মুখে বাংলার নিরাপত্তা

0
51

নদিয়া: ডিউটি করে ফেরার পথে রাস্তায় আক্রান্ত হন এক পুলিশ কর্মী। অভিযোগ, ওই পুলিশকর্মীকে বেধড়ক মারধর করে রাস্তায় ফেলে রাখে দুষ্কৃতীরা। নির্মম ঘটনাটি ঘটেছে নদীয়ার কৃষ্ণনগর কোতোয়ালি থানা এলাকায়। এই ঘটনার জেরে প্রশ্নের মুখে পড়েছে বাংলার নিরাপত্তা।

সূত্রের খবর, ওই পুলিসকর্মীর নাম প্রীতম রায়। তিনি কৃষ্ণনগরের বাসিন্দা। গত দু’বছর ধরে নবদ্দীপ থানায় কর্মরত। এই ঘটনার জেরে গোটা কৃষ্ণনগর এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়েছে।

জানা গিয়েছে, ওই পুলিশকর্মী ১৫ দিন অন্তর বাড়ি ফিরতেন। গতকাল সন্ধ্যায় তিনি যখন বাড়ি ফিরছিলেন হঠাৎ রাস্তায় ওই এলাকার কিছু ছেলের সঙ্গে বিতর্কে জড়িয়ে পড়েন। ওই পুলিশকর্মীর অভিযোগ, বিতর্কে জড়িয়ে পরার পরেই তাকে বেধড়ক মারধর করা হয়। ইট দিয়ে মেরে মুখ থেঁতলে দেওয়া হয়।

এরপর ওই পুলিশকর্মী চিৎকার-চেঁচামেচি শুরু করলে ঘটনাস্থল ছেড়ে পালিয়ে যায় অভিযুক্তরা। এর পরে গুরুতর আহত অবস্থায় ওই পুলিশকর্মীকে পরিবার এবং স্থানীয়রা শক্তিনগর জেলা হাসপাতালে ভরতি করে। বর্তমানে তিনি সেখানেই চিকিৎসাধীন।

এবিষয়ে পুলিসকর্মীর স্ত্রী পিংকি রায়ের দাবি, ওই এলাকারই কিছু যুবক তাকে মারধর করেছে। কি কারণে এমন ঘটনা তা তিনি না বলতে পারলেও কঠিন শাস্তির দাবি জানিয়েছেন তিনি। ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। যদিও কোনও অভিযুক্ত এখনও গ্রেফতার হয়নি।