হাতে হ্যারিকেন নিয়ে বাঁশের ওপর বসে আছেন প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী

0
49

তিমিরকান্তি পতি, বাঁকুড়া: ছিলেন আলিপুর সেন্ট্রাল জেলে৷ আচমকাই রাতারাতি সেই তাঁরই দেখা মিলল বাঁকুড়ার সোনামুখীর রাধামোহনপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের রামচন্দ্রপুর গ্রামে৷ গ্রামে বসেছে ঝুলন উৎসব৷ সেখানেই হাতে হ্যারিকেন নিয়ে বাঁশের উপর ঠায় দাঁড়িয়ে আছেন প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী (partha chatterjee)। পিছনে সাদা কাগজের উপর লাল কালিতে লেখা পোষ্টার,’পার্থর হাতে হ্যারিকেন…!’

হেঁয়ালি নয়, শিক্ষাক্ষেত্রে নিয়োগে দুর্নীতির অভিযোগে এই মুহূর্তে জেল হেফাজতে থাকা পার্থ-র জ্যান্ত ডামিই (জীবন্ত পুতুল) এখানকার মূল আকর্ষণ৷ স্বভাবতই, ‘মডেল পার্থ’কে দেখতে উপচে পড়া ভিড়৷ ঝুলন উৎসবে অংশ নিয়ে মধুসূদন রায় নামে স্থানীয় এক বাসিন্দা বলেন, ‘‘হাজার হাজার ছেলেমেয়ের জীবন নিয়ে ছিনিমিনি করেছেন৷ এদেরকে তো আমরা নিজেদের হাতে শাস্তি দিতে পারব না৷ এটাই যথেষ্ট৷ ঝুলন উৎসব কমিটির এই উদ্যোগ যথেষ্ট প্রশংসনীয়৷’’

- Advertisement -

রাধাকৃষ্ণ ঝুলন উৎসব কমিটির পক্ষে দেবাশিস বৈদ্য বলেন, কোন রাজনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গী দিয়ে নয়। সমাজের উপরতলার মানুষ কিভাবে দুর্নীতিতে যুক্ত সেটাই তুলে ধরার চেষ্টা করা হয়েছে মাত্র৷ মেলায় হাজির হয়েছিলেন সোনামুখীর বিজেপি বিধায়ক দিবাকর ঘরামী৷ তিনি বলেন, ‘‘উনি এখন সমাজে ‘ঘৃণার পাত্র’। যুব সমাজের মেরুদণ্ড ভেঙে উনি ‘পঙ্গু’ করে দিয়েছেন। ফলে ঝুলন মেলায় সাধারণ মানুষের রাগের বহিঃপ্রকাশ ঘটছে৷’’

স্বভাবতই, ঝুলন উৎসবকে কেন্দ্র করে মেলায় আসা মানুষজনের মধ্যে আলোচনার প্রধান বিষয় এই মুহূর্তে শিক্ষা ক্ষেত্রের দুর্নীতি এবং পার্থ চট্টোপাধ্যায় (partha chatterjee))৷ তাঁরা সকলেই বলছেন, এমন চোরেদের দৃষ্টান্তমূলক কঠোরতম সাজা চায়৷ যাতে ভবিষ্যতে অন্য কেউ ক্ষমতায় বসে চুরি করার আগে অন্তত একশোবার ভাবেন৷

আরও পড়ুন: অনুব্রতর ‘তোষামোদ’ করে গোয়েন্দাদের নজরে সরকারি চিকিৎসক