জম্মু ও কাশ্মীরে তীর্থযাত্রীদের বাসে হামলার করতে জঙ্গিরা ব্যবহার করতে পারে স্টিকি বোমা

0
31

শ্রীনগর: করোনার ভয় কাটিয়ে চলতি বছরের মে মাস থেকে শুরু হয়েছে চারধাম তীর্থযাত্রা। জম্মু-কাশ্মীরে এই চার ধামে দেশের বহু তীর্থযাত্রী আসেন পুণ্য অর্জনে। পাহাড়ি পথ বেয়ে মন্দিরে যান যে যার মনস্কামনা পূর্ণ করার জন্য ঠাকুরের কাছে প্রার্থনা করতে। কিন্তু এই চারধাম যাত্রায় রয়েছে বিপদও। কারণ সন্ত্রাসবাদীরা আতঙ্ক ছাড়াতে তীর্থযাত্রীদের উপর হামলার পরিকল্পনা করে থাকে। যদিও সফল হয় না ভারতীয় সেনার নিরাপত্তা বলয়ের কারণে। তবুও এবার গোয়েন্দারা সতর্ক করে জানিয়েছে যে, জম্মু ও কাশ্মীরে তীর্থযাত্রীদের বাসে হামলার করতে জঙ্গিরা ব্যবহার করতে পারে স্টিকি বোমা।

সূত্র আগাম সতর্ক করে জানিয়েছে যে, কাটরায় তীর্থযাত্রী ভর্তি একটি বাসে হামলা চালানোর জন্য একটি স্টিকি বোমা ব্যবহার করা হতে পারে। এই কারণেই সন্ত্রাসবিরোধী তদন্ত সংস্থা ন্যাশনাল ইনভেস্টিগেশন এজেন্সি বা NIA-এর একটি দল আজ ঘটনাস্থল এবং বাসটি পরিদর্শন করেছে। জানিয়ে রাখা ভাল, ১৩ মে শুক্রবার তীর্থযাত্রীদের নিয়ে যাওয়া একটি বাসে আগুন লেগে চারজন নিহত এবং ২৪ জন আহত হয়। কাটরা থেকে জম্মু যাওয়ার পথে কাটরা থেকে প্রায় ১.৫ কিলোমিটার দূরে খারমালের কাছে বাসটি আগুন ধরে যায়। প্রাথমিক তদন্ত অনুসারে, ইঞ্জিন থেকে আগুনের সূত্রপাত, যা কিছুক্ষণের মধ্যেই পুরো বাসটিকে গ্রাস করে।

আরও পড়ুন- জাতীয় সড়কে ভয়াবহ পথ দুর্ঘটনা প্রাণ কাড়ল বিজেপি নেতার

সেই দুর্ঘটনা হলেও জঙ্গিরা যে সুযোগের অপেক্ষা করে রয়েছে সেটা জানিয়েই সুরক্ষাবাহিনীকে সতর্ক করা হয়েছে। তীর্থযাত্রীদের নিরাপদে ভ্রমণ করানোই সরকারের মূল লক্ষ্য। এমনকি তীর্থযাত্রীদের সুরক্ষা ও তাঁদের যাত্রাপথে যাতে কোনও বাধা না আসে সেই কারণে যাত্রা শুরুর আগে থেকেই একাধিকবার জম্মু-কাশ্মীর পুলিশ ও সেনার উচ্চপদস্থ কর্তারা বৈঠক করেছেন। তীর্থযাত্রায় পথে মোতায়েন করা রয়েছে ভারতীয় সেনাদের। তবে তা সত্বেও কোনও ভাবে যেতে সন্ত্রাসবাদের ছাইয়া না পড়ে সেই দিকেই আরও বেশি করে নজর দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।