গ্রামে ডাকাত পড়েছে, সময়ে ফোনই ধরল না পুলিশ

0
17
Robbery

হাওড়া: জুম্মাবারের সূর্য তখনও ওঠেনি৷ ঘড়ির কাঁটায় ভোর ৪ টে৷ জীবনে প্রথমবার ঘুম চোখে ডাকাত দেখলেন হাওড়া বড়গাছিয়া গ্রামের সুজিত কাঁড়ার৷ কিছু বুঝে ওঠার আগেই শুরু হল বেধড়ক মার৷ মারের চোটে মাথায় ও কপালে গুরুতর চোট৷ ডাকাত দল ডাকাতি (Robbery) করে ফিরে যাওয়ার পরই সাহস করে প্রতিবেশী যুবককে ফোন করেছিলেন৷

ওই যুবকের কথায়, ‘ডাকাত দল তখনও গ্রাম ছেড়ে যাইনি৷ থানাতে ফোন করেছিলাম৷ বারংবার ফোন করেছি৷ রিং বেজে গিয়েছে৷ কেউ ফোন ধরেননি৷’’ অবশেষে ভোরের আলো ফোটার পর ‘হেলে দুলে’ স্পটে এসে পৌঁছায় পুলিশ৷ যার ফলে পুলিশকে দেখে মৃদু ক্ষোভও প্রকাশ করেন গ্রামবাসীরা৷ তাঁদের কথায়, ‘‘গত এক মাসে বার বার আশেপাশের গ্রামে ডাকাত দল হানা দিচ্ছে৷ পুলিশ সক্রিয় হলে এমনটা হত না৷’’

- Advertisement -

বাধা দেওয়ায় গৃহকর্তা সুজিত কাঁড়ারের মাথা ফাটিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠল ডাকাতদলের বিরুদ্ধে। সুজিত বাবুর দাবি ওই ডাকাত দল আনুমানিক ১২ লক্ষ টাকার সোনার গয়না নিয়ে পালিয়ে যায়। জানা গেছে শুক্রবার ভোররাতে পৌনে ৪টে নাগাদ মুখ গামছা বাঁধা অবস্থায় ডাকাত দল বাড়ির লোহার গ্রিলের দরজার তালা ভাঙার পর বাড়ির দরজা ভেঙে ভিতরে ঢোকে। সুজিত বাবু জানান দুষ্কৃতীরা হাতে লোহার রড, শাবল ও ছেনি নিয়ে ঘরের ভেতর ঢোকে। অবাধে লুটপাট চালিয়ে যাওয়ার আগে তারা গৃহকর্তা, তার স্ত্রী ও ছেলের মুখ হাত পা বেঁধে চলে যায়।

পুজোর মুখে এমন ডাকাতির (Robbery) ঘটনায় গ্রামবাসীদের মধ্যে ছড়িয়েছে তীব্র আতঙ্ক৷ তাঁদের কথায়, ‘‘দিনকে দিন যেহারে জিনিসপত্রের দাম বাড়ছে তাতে টানাটানির সংসার চালাতেই হিমশিম খেতে হচ্ছে৷ তবু দু’বছর পর এবারে করোনা মুক্ত পুজো৷ তাই সকলে আনন্দ উৎসবে মেতে ওঠার জন্য তৈরি হচ্ছিলাম৷ এমন আবহে ডাকাতের হানা গ্রামে বাড়তি আতঙ্ক তৈরি করেছে৷’’

জানা গিয়েছে, এদিন ভোর রাতে হাওড়ার জগৎবল্লভপুর থানা এলাকার বড়গাছিয়া গ্রামে হানা দেয় ডাকাত দল৷ কয়েক লক্ষ টাকার সোনার গহনা ও নগদ টাকাপয়সা নিয়ে চম্পট দেয় ডাকাতের দলটি। শুক্রবার ভোররাতে ঘটনাটি ঘটে। ঘটনার প্রায় দেড় ঘণ্টা পরে গ্রামে এসে পৌঁছায় জগৎবল্লভপুর থানার বিশাল পুলিশবাহিনী৷ পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে৷ ডাকাতদলকে চিহ্নিত করতে এলাকার সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখা হচ্ছে৷

আরও পড়ুন: দিদির জমানা: আতঙ্কের নাম CPM, প্রাণ বাঁচাতে মরা স্বামীকেও অস্বীকার করতে দ্বিধা করেননি বধূ

downloads: https://play.google.com/store/apps/details?id=app.aartsspl.khaskhobor