চৈতন্যদেবের অতি প্রিয় খাদ্য, শ্রীকৃষ্ণের নামেই নামকরণ বাঙালির প্রিয় রাধাবল্লভীর

0
68

বিশ্বদীপ ব্যানার্জি: “ওগো লুচি তোমার মান্য ত্রিভুবনে।” সত্যিই লুচির মান্য ত্রিভুবনে। তা বলে লুচির জ্ঞাতি ভাই-বোনদের খ্যাতি-ও নেহাত কম নয়। লুচির এমনই এক জ্ঞাতিভাই হল, রাধাবল্লভী। যা একসময় বিয়ে বা যে কোনও বড় অনুষ্ঠানে নিয়মিত ওপেনার ছিল। আজ নান ইত্যাদির ভিড়ে একটু অনিয়মিত হয়ে গেলেও জনপ্রিয়তায় ভাটা পড়েনি এতটুকু।

আরও পড়ুন: বৈষ্ণবের বাড়ি সবুজ রংয়ের কালীমূ্র্তি

- Advertisement -

কলকাতার বইপাড়া অঞ্চলে বিখ্যাত মিষ্টির দোকান পুঁটিরাম। আজও পুঁটিরামের বাইরে কার্যত লাইন দিতে দেখা যায় রাধাবল্লভীর প্রত্যাশী বঙ্গসন্তানদের। রাধাবল্লভীর জন্য কলকাতার সবথেকে প্রসিদ্ধ দোকান এই পুঁটিরাম-ই। এছাড়া হুগলি জেলার শ্রীরামপুরে মহেশ দত্তের দোকানের রাধাবল্লভীর-ও খ্যাতি রয়েছে।

বাটা মাসকলাইয়ের সঙ্গে ময়দা মিশিয়ে তার মধ্যে হিং, মৌরি, আদা, লঙ্কা ইত্যাদির পুর দিয়ে তৈরি রাধাবল্লভী অনেকটা ডালপুরীর মতই। তবে আকারে ডালপুরীর থেকে অনেকটাই বড়। ছোলার ডাল আর আলুর দমের সঙ্গে জমে যায় পুরো। শোনা যায়, স্বয়ং মহাপ্রভু শ্রীচৈতন্যদেব এই খাদ্যটির বিশেষ অনুরাগী ছিলেন।

এমনকি এই রাধাবল্লভীর নামকরণও হয়েছে মহাপ্রভুর আরাধ্য দেবতার নাম থেকে। শ্রীকৃষ্ণের আরেক নাম রাধাবল্লভ। সেই থেকে এই সুস্বাদু খাবারটির নামকরণ। তবে কেন এই নামকরণ, তার নেপথ্যে একটি নয় বরং তিনটি আলাদা আলাদা গল্প চালু। কথাতেই তো আছে, নানা মুনির নানা মত। ইতিহাস বারবার সেখানেই হোঁচট খায়।

একটি মত অনুসারে, খড়দহে প্রতিষ্ঠিত শ্যামসুন্দরের জন্য চৈতন্যদেব স্বয়ং এই খাবারটির উদ্ভাবন করেন। অন্য মতে, মুর্শিদাবাদের কান্দি গ্রামের জমিদাররা তাদের কুলদেবতা রাধাবল্লভকে এই খাবারটি ভোগ হিসেবে দিতেন। সেই কারণেই এর নাম, রাধাবল্লভী। আর শেষ মতটি বলে, কলকাতার শোভাবাজার রাজবাড়ির গৃহদেবতা রাধাবল্লভকে এই পদটি ভোগ দেওয়া হত।

খাস খবর ফেসবুক পেজের লিঙ্ক:
https://www.facebook.com/khaskhobor2020/

যদিও রাধাবল্লভীর উৎপত্তি বাংলায় কিনা তা নিয়ে যথেষ্ট বিতর্ক রয়েছে। প্রাচীন শাস্ত্রে যদিও এই খাবারটির উল্লেখ পাওয়া যায় না। তবে সংস্কৃতে এর নাম দেওয়া হয়েছে, বেষ্টনিকা। দ্রব্যগুণের কারণে এহেন নামকরণ। কথিত রয়েছে, জিতেন্দ্রনাথ নামক জনৈক মোদক বৃন্দাবন থেকে এই পদটি শিখে আসেন। তারপর কলকাতায় চালু করেন। ইনি ছিলেন পুঁটিরামের আত্মীয়। সেই সূত্রেই পুঁটিরামের রাধাবল্লভী এত প্রসিদ্ধ।