মুখ্যমন্ত্রীর ইচ্ছাপূরণ, বারাণসীর ধাঁচে এবার কোন্নগরে শুরু গঙ্গা আরতি

0
46
Ganga Aarti

খাস ডেস্ক: সোমবার নবান্নে প্রশাসনিক বৈঠকে ইচ্ছেপ্রকাশ করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি চেয়ে ছিলেন এবার থেকে গঙ্গাঘাট গুলিতে বারাণসীর ধাঁচে আরতি (Ganga Aarti) হোক। আর মুখ্যমন্ত্রীর ইচ্ছেপ্রকাশের পরই তৎপর হয় পুরসভা গুলি। আর এদিন মুখ্যমন্ত্রীর ইচ্ছাপূরণ করে বারাণসীর ধাঁচে গঙ্গা আরতি (Ganga Aarti) শুরু হল কোন্নগরে।

বিস্তারিত খবর, লাইভ ভিডিও সহ সমস্ত রকম আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ: https://www.facebook.com/khaskhobor2020/

- Advertisement -

প্রসঙ্গত, গঙ্গা আরতির (Ganga Aarti) পাশাপাশি পুরসভাকে গঙ্গাঘাট গুলির রক্ষণাবেক্ষণ নিয়েও ক্ষোভ প্রকাশ করে মুখ্যমন্ত্রী। গঙ্গা আরতি (Ganga Aarti) নিয়ে ইচ্ছেপ্রকাশ করে তিনি বলেন, “আমি চাই আমাদের বাংলাতেও প্রতিদিন বিকেলে গঙ্গা আরতি হোক। উত্তরপ্রদেশের মত আমাদেরও গঙ্গা আছে। তাহলে আমরা কেন আরতি করবো না? এমন ঘাটে আরতি (Ganga Aarti) করতে হবে যেখানে পাশে মন্দির আছে! বসার জায়গা আছে!” আর মুখ্যমন্ত্রীর এই নির্দেশের পরই জেলায় জেলায় তৎপর প্রশাসন।

আরও পড়ুন-Shraddha Murder Case: আফতাব চাইত সবাই যেন তার কথা শুনে চলে, মুখ খুললেন ধৃতের বন্ধুরা

জানা গিয়েছে, এদিন কোন্নগরের বারো মন্দির ঘাটে আয়োজিত হল গঙ্গা আরতি (Ganga Aarti)। ওই গঙ্গা পাড়ে নারকেল ফাটিয়ে, শাঁখ বাজিয়ে আরতি শুরু হয়। এদিন গঙ্গাঘাটে উপস্থিত ছিলেন কোন্নগর পুরসভার চেয়ারম্যান স্বপন দাস। গঙ্গা আরতির (Ganga Aarti) পাশাপাশি ঘাট গুলি রক্ষণাবেক্ষণের জন্য একাধিক পদক্ষেপ গ্রহণ করবে পুরসভা এমনটাই জানান, কোন্নগর পুরসভার চেয়ারম্যান স্বপন দাস।

সারাদিনের সমস্ত খবরের আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন খাস খবর অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ: https://play.google.com/store/apps/details?id=app.aartsspl.khaskhobor

এছাড়াও এদিন কোন্নগর পুরসভার চেয়ারম্যান স্বপন দাস বলেন, “আমাদের মাননীয়া ইচ্ছেপ্রকাশ করেছে। আর তাঁর এই ইচ্ছের মান রাখতেই আমাদের গঙ্গা আরতি (Ganga Aarti)। আর এই বারো মন্দির ঘাট কোন্নগরে সবচেয়ে প্রাচীন ঘাট। এই মন্দির ঘাটে মহাদেবের দ্বাদশ জ্যোতির্লিঙ্গ আছে। তাই আমরা ঠিক করেছি এর পর থেকেই এই পবিত্র ঘাটে গঙ্গা আরতি (Ganga Aarti) হবে।” পুরসভার চেয়ারম্যানের এই সিদ্ধান্তে খুশি এলাকাবাসীরা।