প্রচারে আমার বিরুদ্ধে মন্তব্য করবেন না জয়া বচ্চন: বাবুল সুপ্রিয়

0
508

কলকাতা: একুশের বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূলের হয়ে প্রচারে এসেছেন অভিনেত্রী জয়া বচ্চন। বঙ্গতনয়া জয়াদেবী এই মুহূর্তে সমাজবাদী পার্টির সাংসদ। রাজ্যসভার ওই সাংসদ সোমবার টালিগঞ্জের তৃণমূল প্রার্থী অরূপ বিশ্বাসের হয়ে প্রচার করবেন। যদিও ওই হেভিওয়েট তারকা প্রচারক নিয়ে বিন্দুমাত্র চিন্তিত নন টালিগঞ্জ কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী বাবুল সুপ্রিয়।

আরও পড়ুন- প্রচারে বেরিয়ে বিক্ষোভের মুখে বৈশালী, স্থানীয়দের বাধায় এলাকা ছাড়েন বিজেপি প্রার্থী

- Advertisement -

অনেক আগেই সমাজবাদী পার্টির প্রধান অখিলেশ যাদব একুশের নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গে তৃণমূলকে সমর্থন করার কথা জানিয়েছিলেন। সেই সমর্থনের অঙ্গ হিসেবেই রবিবার কলকাতায় আসেন জয়া বচ্চন। সোমবার বিকেলের দিকে তপসিয়ার তৃণমূল ভবনে সাংবাদিক সম্মেলন করেন ধন্যি মেয়ে। সেই সময়েই নিজের দলের প্রতীক হিসেবে লাল টুপি মাথায় দিয়েছিলেন জয়া।

আরও পড়ুন- ক্রিকেটার না হলে ISIS জঙ্গি হতেন মইন আলি, বিস্ফোরক তসলিমা

ওই সাংবাদিক সম্মেলন শুরুর আগে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়েছিলেন টালিগঞ্জের বিজেপি প্রার্থী বাবুল সুপ্রিয়। তিনি বলেছেন, “আমি সমাজবাদী পার্টির নেত্রী জয় বচ্চনকে কলকাতায় স্বাগত জানাচ্ছি। উনি আমাকে খুব ভালো করেই চেনেন। একটা খুব ভালো পারিবারিক সম্পর্ক রয়েছে আমাদের। যদিও সেই বিষয়ে আমি কিছুই বলব না।”

খুব স্পষ্ট করে বাবুল সুপ্রিয় জানিয়ে দিয়েছেন যে সমাজবাদী পার্টির নেত্রী তথা সাংসদ জয়া বচ্চনকে নিয়ে একেবারেই চিন্তিত নয় বিজেপি। জয়া বচ্চন বিজেপি বিরোধী মন্তব্য করলেও তাঁর বিরুদ্ধে কিছুই বলবে না বলে দাবি করেছেন বাবুল। তাঁর কথায়, “জয়া বচ্চন বিজেপির বিরুদ্ধে বক্তব্য রাখতেই পারেন এবং রাখবেন। কিন্তু উনি (জয় বচ্চন) কখনই আমার বিরুদ্ধে কিছুই বলবেন না।”

আরও পড়ুন- ‘হিন্দুদের ভোট করতে দিতে চান না, এটাই মমতার আসল চেহারা’, বিস্ফোরক শুভেন্দু

সোমবার থেকে বুধবার পর্যন্ত কলকাতায় থাকবেন জয়া বচ্চন। এই তিন দিন তৃণমূলের হয়ে বিভিন্ন জায়গায় প্রচার করবেন তিনি। এরই মাঝে তৃতীয় দফার ভোট রয়েছে। ওই দফার ভোটের প্রচার পর্বও শেষ হয়ে গিয়েছে। যার অর্থ ৯১টি কেন্দ্রে তৃণমূলের প্রার্থীদের হয়ে প্রচার করতে পারবেন না বঙ্গতনয়া জয়া।

তৃণমূলের হয়ে বাংলার মেয়ে জয়া বচ্চনের প্রচারে আসার প্রসঙ্গে দিলীপ ঘোষ বলেন, “বাংলায় জয়ার বচ্চনের সঙ্গে আজকের প্রজন্মের কি সম্পর্ক আছে৷ কজন তাঁর নাম জানেন ঠিক করে। উনি সমাজবাদী পার্টিতে এমপি হিসাবে রাজ্য সভায় গিয়েছেন, ঠিক আছে। একটা সময় বাংলার মেয়ে হিসাবে অভিনয় করেছেন। বাংলার সঙ্গে কি সম্পর্ক আছে। বাংলার সমস্যা নিয়ে কিছু বলেছেন কখনও। উনি এসেছেন কখনও। কোনরকমে পটিয়ে পাঠিয়ে জয়াদিকে নিয়ে আসছে ওরা।”