‘তোমার আমার বইমেলা’, বই এবার হাতের মুঠোয়

0
25

গিল্ডের নয়া উদ্যোগে বইমেলা এবার বাড়ির কাছেই
#Kolkata #BookFair #Guild #khaskhobor #khaskhabar

বৈশালী চ্যাটার্জি, কলকাতা : একটা ধূসর আবছায়ার মধ্যে দিয়ে আমরা ক্রমশ পেরিয়ে চলেছি সময়। ঘড়ির কাঁটা ঘুরছে আমাদের হাতছাড়া হচ্ছে না জানি কত কিছু। এভাবেই বদলাচ্ছে সংস্কৃতি, বদলাচ্ছে যুগ। এর মধ্যেই হেঁটে যেতে হবে বহুপথ। হাতছাড়া হবে কত কিছু, কত মানুষ, না জানি কত কিছুই অতীত হবে। এর মধ্যেই সঙ্গী হবে দু-একটা বই। মানুষ ছেড়ে যাবে তবু বই ছাড়বে না সঙ্গ। সংস্কৃতি মুঠোফোনে বদলেছে রঙ। তবু বই যে এখনও বাঙালির তথা তিলোত্তমার বুকের কোথাও ভালোবাসায় জড়িয়ে আছে। এই অভ্যাসকেই আরও জীবন দিতে এবার গিল্ডের নয়া প্রচেষ্টা।

কলকাতা ভীষণ বড় শহর, পাশাপাশি জীবন ছুটছে ট্রেনের গতিতে। তাই বই এবার একদম বাড়ির কাছেই পৌঁছে দিল গিল্ডের এই নয়া পরিকল্পনা। আরেকটু ভালোভাবে বললে, বই নয় সরাসরি বইমেলা এবার একদম শহরের বিভিন্ন আবাসনের মধ্যেই। এবার এই পরিকল্পনা নিয়েই ময়দানে একরাশ পাবলিশার্স এর বই নিয়ে হাজির গিল্ড। শুধু বইপ্রেমী নয় বাকি সকলের বই পড়ার অভ্যাসকে বাড়িয়ে দিতেই এই পরিকল্পনা। বাড়ির বয়স্কদের দ্বারা কখনোই সম্ভব হয় না দূরে গিয়ে বই কেনা। তাই আবাসনের মধ্যেই শুরু বইমেলা।

২০২২ সালে মোট তিনটি আবাসনে হবে এই বইমেলা। খাস খবরের সঙ্গে কথোপকথনে এমনটাই জানিয়েছেন দে’জ পাবলিশার্স-এর সুদীপ্ত দে। তিনি বলেছেন, পয়লা জুলাই থেকে 3 জুলাই অবধি ‘তোমার আমার বইমেলা’ চলবে সন্তোষপুরের উৎসব আবাসনে। স্বয়ং শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায় এই বইমেলার উদ্বোধন করলেন পয়লা জুলাই।

শুধু তাই নয়, তিনি আরও জানান, এই বইমেলা সুযোগ করে দেবে পাঠকদের বিশিষ্ট লেখকের মুখোমুখি হওয়ার। বিতর্ক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে এই বইমেলাতে। এমনকি তাঁর কথায়, করোনা পরবর্তী পরিস্থিতিতে শিশু থেকে বৃদ্ধ সকলের বই পড়ার এবং বই কেনার অভ্যাসকে আবার উজ্জীবিত করতেই এই প্রচেষ্টা। আগামী দিনেও গিল্ডের এই প্রচেষ্টাকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার ইঙ্গিতও দিয়েছেন তিনি।