মুকুল সুবিধেবাদী, মমতা স্বৈরাচারী মুখ্যমন্ত্রী- কেন বললেন অনির্বাণ

0
141

কলকাতা: বাংলার রাজনীতিতে তিনি ‘চাণক্য’ হিসেবে পরিচিত৷ তবে দলবদলের পর থেকে মুকুল রায়ের নতুন নামকরণ হয়েছে৷ এমনটাই দাবি করে বিজেপির অন্যতম থিঙ্কট্যাঙ্ক তথা ড: শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় রির্সাচ ফাউন্ডেশনের ডিরেক্টর ড: অনির্বাণ গঙ্গোপাধ্যায় (Anirban Ganguly) বলেন, ‘‘ওনাকে (মুকুল রায়) শুধু রাজনীতিবিদ বললে ভুল হবে৷ বলা উচিত বিশিষ্ট সুবিধেবাদী রাজনীতিবিদ!’’

                খাস খবরের তরফে বিশেষ সাক্ষাৎকারটি নিয়েছেন অভিনব চট্টোপাধ্যায়

কেন একথা বলছেন তাঁর ব্যাখ্যা দিয়েছেন৷ একই সঙ্গে বিধানসভার স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়ের নিরপেক্ষতা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন৷ অনির্বাণের কথায়, ‘‘একজন বিধায়ক (মুকুল রায়) দলবদল করে অন্য দলে গেলেন৷ তারপরও তাঁকে বিজেপির বিধায়ক দেখিয়ে পাবলিক অ্যাকাউন্টস কমিটির (পিএসি) চেয়ারম্যান করা হল৷ সব জেনেও বিধানসভার স্পিকার এটাকে অনুমতি দিলেন, যাতে শাসকদলের অনৈতিক কাজকর্মে সুবিধে হয়৷ যা থেকে স্পষ্ট স্পিকার নিরপেক্ষ না৷’’

আরও পড়ুন: চোর তবে কি ল্যাপটপ প্রেমী, প্রশ্ন গৃহকর্তার

বিজেপির লড়াকু নেতা এরপরই মুকুল-মমতাকে এক বন্ধনীতে রেখে তাচ্ছিল্যের সুরে বলেছেন, ‘‘ দলবদলেও যিনি (মুকুল রায়) পুরনো দলের নাম ভাঙান তাঁকে সুবিধেবাদী ছাড়া আর কি বলা যেতে পারে৷ আর পরাজিত স্বৈরাচারী মুখ্যমন্ত্রী? ওঁনার সম্পর্কে যত কম কথা বলা যায়, ততই ভাল৷ কারণ, উনি (মমতা) যে অনৈতিক রাজনীতি করতেই অভ্যস্ত পিএসি-র চেয়ারম্যান নিয়ে যা ঘটল, তা থেকে পুরো বিষয়টা বাংলার মানুষের কাছে স্পষ্ট হয়ে গেল৷’’

আরও পড়ুন: ছুঁচো মেরে হাত গন্ধের অভিযোগ, বাসিন্দাদের ক্ষোভের মুখে মমতার মন্ত্রী

দাবি করেছেন, ‘‘এটা বাংলার গণতন্ত্রের পক্ষে সত্যিই ভীষণ বিপজ্জনক৷’’ প্রসঙ্গক্রমে সমর্থন জানিয়েছেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর পদক্ষেপকে৷ অনির্বাণের কথায়, ‘‘বিধানসভার অলিন্দে আমাদের দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী সঠিক পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন৷ ওঁরা রাজ্যপালকে জানানোর পাশাপাশি রাষ্ট্রপতির কাছেও যাবেন৷ এটা জানানো সত্যি জরুরি৷ এই অনৈতিক কাজকর্ম এখনই রুখতে না পারলে আগামীদিনে বাংলার গনতান্ত্রিক কাঠামোয় আরও দুর্দশা নেমে আসবে৷’’