রাত্রে বাইরে যাওয়া মেয়েরা পতিতা, দাবি মুসলিম ধর্মগুরুর

ধর্ম অনুসারে মহিলাদের স্থান অনেক নিচে। মেয়েরা শুধু ভোগ্যপণ্য। এর বাইরে আর কিছুই নয়। এমনই মন্তব্য করলেন বাম শাসিত কেরলের ধর্মগুরু মাওলানা স্বালিহ বেথেরিক।

0
286

খাস খবর ডেস্ক: ধর্ম অনুসারে মহিলাদের স্থান অনেক নিচে। মেয়েরা শুধু ভোগ্যপণ্য। এর বাইরে আর কিছুই নয়। এমনই মন্তব্য করলেন বাম শাসিত কেরলের ধর্মগুরু মাওলানা স্বালিহ বেথেরিক।

আরও পড়ুন- ‘খেলা হবে’ নয়, সপা-র মিছিলে স্লোগান উঠল ‘পাকিস্তান জিন্দাবাদ’

একটি সভায় ওই ধর্মগুরুকে বলতে শোনা গিয়েছে যে ইসলাম ধর্মে নারীকে শস্যক্ষেত্র ছাড়া আর কিছু ভাবা হয় না। নারীকে দেওয়া হয় না বিন্দুমাত্র সম্মান। ইসলাম ধর্মের আশ্রয়ে কোনো নারী সুরক্ষিত নয়। পুরুষের লালসার হাত থেকে রেহাই পায় না বাড়ির মেয়ে ব‌উ থেকে শুরু করে প্রতিবেশী।

আরও পড়ুন- তৃণমূল প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানি বলেই হেরেও মুখ্যমন্ত্রী মমতা: শুভেন্দু

সম্প্রতি কেরালার একটি ভিডিও ক্লিপ ভাইরাল হয়েছে। বিতর্কিত সেই ক্লিপে দেখা গিয়েছে, একজন মুসলমান ধর্মগুরু নারীদের বিরুদ্ধে অবমাননাকর মন্তব্য করেছেন। ভাইরাল ভিডিওতে কেরালার বিখ্যাত আলেম মাওলানা স্বালিহ বেথেরিককে বলতে শোনা গিয়েছে, যে মহিলারা রাত নটার পর রাস্তায় বের হয় তারা পতিতা ছাড়া আর কিছুই নয়, তাদের অবিলম্বে হত্যা করা উচিত।

আরও পড়ুন- সাত বছরের শিশুকে যৌন হেনস্থার জেরে উত্তাল শিল্পনগরী

বিতর্কিত ভিডিওতে, স্বালিহ ২০১১ সালে সৌম্য নামে এক মেয়েকে ধর্ষণ করে হত্যা করার জন্য ধর্ষক গোবিন্দচামিকে সাপোর্ট করেছেন। তিনি সৌম্য মামলার রায়দানকারী বিচারকের সমালোচনা করেছেন। স্বালিহের বক্তব্য অনুযায়ী, গোবিন্দচামি সৌম্যকে ধর্ষণ করে বেশ করেছিল কারণ তার মতে, রাত নটার পর রাস্তায় ভ্রমণকারী প্রতিটি মেয়েই বেশ্যা। ২০১৬ সালে এসসি অভিযুক্তের বিরুদ্ধে মৃত্যুদণ্ডের রায় খারিজ করে এবং ধর্ষণের জন্য মাত্র ৭ বছরের কারাদণ্ড দেয়।

হ্যাচিনসন-গিলফোর্ড প্রোজেরিয়া সিন্ড্রোম (এইচজিপিএস) বা “বেঞ্জামিন বটন” রোগে আক্রান্ত ২৭ বছর বয়সী আলেম স্বালিহ বেথরি। তাই তাকে শিশু হুজুরের মতো দেখাচ্ছে। তবে এই প্রথম নয়, স্বালিহ বেথরি বিতর্কিত মন্তব্যের জন্য‌ই পরিচিত।