Belashuru : জীবনের শেষ ছবি, কিভাবে নিজেকে প্রস্তুত করেছিলেন Swatilekha Sengupta

0
49

বিনোদন ডেস্ক : সদ্য মুক্তি পেয়েছে ‘বেলাশুরু’, প্রথম দিনেই বক্স অফিসে শোরগোল ফেলেছে ছবি।প্রথম দিনেই বাণিজ্য ৮০ শতাংশ। শিবপ্রসাদের কথায় সৌমিত্র-স্বাতীলেখাই রাজা-রানি। এছবিই জীবনের শেষ ছবি বর্ষীয়ান অভিনেত্রী স্বাতীলেখা সেনগুপ্তর। শারীরিক ও মানসিক সমস্যা,অভিনয় পারা নিয়ে দ্বিধা, কেমন করে নিজেকে প্রস্তুত করেছিলেন অভিনেত্রী ? এদিন জন্মবার্ষিকীতে উঠে এল সেই অদেখা ভিডিও।

আরও পড়ুন : Pallavi Dey case : ভুয়ো ব্যবসা চালাত সাগ্নিক, সমস্তটা কি জানা ছিল পল্লবীর

উইন্ডোজ প্রোডাকশন হাউজের তরফ থেকে এদিন প্রকাশ্যে এল ভিডিও। হ্যালো..হ্যালো.. আমার কথা যাচ্ছে?..’ তারপরেই ঝরঝরিয়ে অনর্গল বলে চললেন অভিনেত্রী। কেমন ছিল তাঁর শুটিং-এর অভিজ্ঞতা,সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের (Soumitra Chatterjee) সঙ্গে কাজ,শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় (Shiboproshad Mukherjee), নন্দিতা রায়ের (Nandita Roy) আদর সমস্ত কিছুই উঠে আসে ভিডিওতে।

অভিনেত্রী জানান, বেলা শেষের পাঁচ বছর পর বেলা শুরু, প্রথমদিকে ভাবতে পারিনি অভিনয় করতে পারব। শারিরীক ও মানসিক দুটোরই সমস্যা ছিল। প্রথমে না করে দিয়েছিলাম,কিন্তু পরে নন্দিতা, শিবুর আদুরে আবদার মানা করতে পারিনি। নন্দিতা বলেছিল, বেলা শেষের মত অতো জটিল কাজ নয় বেলাশুরু খুবই সহজ, কিন্তু একেবারেই তা নয়, বরং উল্টো। এই চরিত্রের জন্য বিশেষ ভাবে নিজেকে প্রস্তুত করেছিলেন অভিনেত্রি। চরিত্রের মধ্যে ঢুকতে শুটিং-এর বেশ কিছুদিন ধরে চলছিল তাঁর অধ্যায়ন। ভিডিওর শেষে সাদায় কালোয় ফুটে ওঠে ‘স্বাতীদি তোমাকে ভীষণ ভালোবাসি। ভালো থেকো।’ সকলের প্রিয় স্বাতীদি আর নেই তা মানতে পারছেন না ভক্তমহল সহ বেলাশুরু পরিবার। ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তর কথায়, জানি তুমি আমাদের মধ্যেই আছো, খুব মনে পরে তোমায় স্বাতীলেখা আন্টি।