এক্সক্লুসিভ: প্রয়াণ দিবসে মহানায়কের নাতবৌ অভিনেত্রী দেবলীনা কুমারের ‘উত্তম-কথা’

0
11838

পূর্বাশা দাস: তিনি শুধু নায়ক নন, তিনি মহানায়ক। আপামর বাঙালির কাছে উত্তম কুমার মানে আবেগ। মৃত্যুর এক চল্লিশ বছর পরেও সকলের মনের মনিকোঠায় রয়েছেন তিনি। যতদিন ছায়াছবি থাকবে, অভিনয় থাকবে, অভিনেতারা থাকবেন ততদিন উত্তম কুমার থাকবেন। মাঝ আকাশ থেকে সূর্যের মতো আলো দেবেন প্রজন্মের পর প্রজন্মকে।

২৪শে জুলাই মহানায়কের প্রয়াণ দিবস। বাঙালির কাছে, উত্তম প্রেমীদের কাছে শোকের দিন। অভিনয়, ব্যক্তিত্ব, ভুবন ভোলানো হাসিতে এই কিংবদন্তী আজও বেঁচে রয়েছেন কোটি কোটি হৃদয়ে।

আরও পড়ুন: পাহাড় বৃষ্টির রোম্যান্টিক পরিবেশে হারিয়ে যাওয়া প্রেম খুঁজছেন শন-সৃজলা

সদ্য মহানায়কের পরিবারের সঙ্গে নিজের জীবন জুড়েছেন অভিনেত্রী দেবলীনা কুমার। উত্তম কুমারের নাতি গৌরব চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে কয়েক মাস আগেই বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন দেবলীনা। মহানায়কের প্রয়াণ দিবসে তাঁর নাতবৌ দেবলীনা খাস খবর এর সঙ্গে ভাগ করে নিলেন বেশ কিছু কথা। দেবলীনা জানালেন, “আমি বা আমার হাজব্যান্ড গৌরব কেউই উনাকে দেখিনি। আমি আমার শাশুড়ি মায়েদের কাছ থেকে উনার সম্পর্কে অনেক গল্প শুনেছি। আজকের দিনে আমাদের বাড়িতে প্রচুর মানুষ আসতেন উনাকে শ্রদ্ধা জানাতে। কিন্তু এই বছর কোভিডের জন্য সেটা বন্ধ রাখা হয়েছে। কাউকে ঢুকতে না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আমি শুনেছি অনেক লোক আসেন কিন্তু আলাদা করে কী কী হয় সেটা আমি দেখিনি। এবারও সেটা আমার দেখা সম্ভব হচ্ছে না। আজকের দিনে উত্তম মঞ্চে একটি অনুষ্ঠান হয়। আমি গত বছরেও সেই অনুষ্ঠানে গিয়েছিলাম। কিন্তু আজকে সারাদিন শুটিং আছে, তাই আমি এরকম কোনও অনুষ্ঠানে যেতে পারব না। আগামী বছর যদি সবকিছু ঠিকঠাক থাকে তাহলে বাড়িতে কিভাবে কত লোকের সমাগম হয় সেই জিনিসটা আমি চাক্ষুষ করতে পারব।  আজকের দিনটা সম্পর্কে যেমন সবার খারাপ লাগা আছে তেমন একজন বাঙ্গালী হিসেবে আমার কাছেও এটা দুঃখের দিন।”

আরও পড়ুন: হ্যাপি ফাদার্স ডে…

উত্তম কুমারের পরিবারের অংশ হওয়ার সময় কোনও বিশেষ অনুভূতি কাজ করেছিল দেবলীনার?  দেবলীনা বললেন, “আমার আলাদা করে উত্তম কুমারের নাতির সঙ্গে আমার বিয়ে হচ্ছে এই বিষয়ে আমার আলাদা করে কখনও কিছু মনে হয়নি। আমি অতটা ‘স্টারস্ট্রাকড্’ নই। তবে আমার বেশ কিছু আত্মীয় স্বজনের মধ্যে এই জিনিসটা ভীষণভাবে কাজ করেছে। যেটা সব বাঙালির হয়। কিন্তু আমার আলাদা করে কোনও ইমোশন কাজ করেনি।”