কী হতে চলেছে এই ব্রহ্মাণ্ডের ভবিষ্যৎ, কী হবে আমাদের, জানালেন প্রখ্যাত বিজ্ঞানী

0
61

ঋত্বিক কুন্ডু (প্রধান শিক্ষক, তালতলা হাই স্কুল): কবিগুরু লিখেছেন, “বিপুলা এ পৃথিবীর কতটুকু জানি।…” পৃথিবী-ই বিপুলা। তাহলেই ভেবে দেখুন আমাদের মহাবিশ্ব অর্থাৎ ব্রহ্মাণ্ড কত বিপুলা। নাঃ সত্যিই কোনও ধারণা নেই আমাদের। শুধু বিজ্ঞানীরা এটুকু জানিয়েছেন, এই মহাবিশ্ব ক্রমেই প্রসারিত হচ্ছে। অর্থাৎ বড় থেকে আরও বড় হচ্ছে।

আরও পড়ুন: শেষ হয়েও হইল না শেষ, LM10 নিয়েই মেতে ফুটবল বিশ্ব

- Advertisement -

আচ্ছা, এই বড় হয়ে চলার কি কোনও শেষ নেই? অনন্তকাল ধরে বড় হয়েই যাবে এই মহাবিশ্ব? নাকি একটা সময়ের পর সংকুচিত হতে শুরু করবে? বিগ ব্যাংয়ের শুরুতে যেমন শুধু একটা বিন্দু ছিল, সংকুচিত হতে হতে তেমনই একটা বিন্দুতে পরিণত হবে? আর আমরা? আমাদের কী হবে ততদিনে? শুক্রবার এ সকল প্রশ্নেরই উত্তর দিয়ে দিলেন আয়ুকা’র (পুনে) জ্যোতির্পদার্থবিজ্ঞানী অধ্যাপক সোমক রায়চৌধুরী।

এদিন ন্যাশনাল স্পেস সায়েন্স সিম্পোজিয়াম এবং প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাস্ট্রোফিজিক্স বিভাগের উদ্যোগে আয়োজিত হয়েছিল একটি সার্বজনীন বক্তৃতা সভা। স্থান, প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিরোজিও হল। সেখানেই এ মহাবিশ্বের ভবিষ্যৎ তুলে ধরলেন অধ্যাপক রায়চৌধুরী। এখানে বিশেষভাবে উল্লেখ্য, অধ্যাপক তাঁর পুরো বক্তৃতাটি-ই দেন বাংলায়। যেহেতু সাধারণ মানুষের মধ্যে বিজ্ঞান চেতনার উন্মেষ ঘটানোই ছিল এই বক্তৃতা সভার প্রধান উদ্দেশ্য।

সভাটি কার্যত কানায় কানায় পূর্ণ ছিল। আর শ্রোতাদের মধ্যে অধিকাংশই ছাত্রছাত্রী। অধ্যাপক রায়চৌধুরীর বাংলায় বক্তব্য রাখার এটিও একটি কারণ। বিজ্ঞান চর্চার পাশাপাশি মাতৃভাষার প্রতি সচেতনতা বাড়ানো-ও ছিল এই সভার একটি উদ্দেশ্য। যা পুরোমাত্রায় সফল। মহাবিশ্বের রহস্য সহজ সরল বাংলায় সাধারণ শ্রোতার বোধগম্য করে তুলেছিলেন অধ্যাপক সোমক রায়চৌধুরী।

খাস খবর ফেসবুক পেজের লিঙ্ক:
https://www.facebook.com/khaskhobor2020/

মহাবিশ্বের ভবিষ্যৎ বিষয়ক এ বক্তৃতায় তিনি বেশ কিছু বিষয় তুলে ধরেন। আগামী কুড়ি বছরে আধুনিক প্রযুক্তির সহায়তায় নতুন বৈজ্ঞানিক আবিষ্কারের ফলে পদার্থ বিজ্ঞানকে নতুন করে লিখতে হবে। এমনটাই আশা করেন অধ্যাপক রায়চৌধুরী। বিশেষতঃ মহাবিশ্বের সবথেকে রহস্যময় যে বস্তু,সেই ডার্ক এনার্জি নিয়ে গবেষণা হয়ত পদার্থবিজ্ঞানের ধারণাকেই পাল্টে দিতে পারে। এমনটাই দাবি তাঁর।

অনুলিখন: বিশ্বদীপ ব্যানার্জি