“আমরা স্বাধীনতা চাই”, জিংপিং-এর পতনের দাবিতে পথে নেমেছেন সাধারণ মানুষ

0
22
China Protest

খাস ডেস্ক: বিশ্বজুড়ে করোনা মহামারির দাপট কমার সাথে সাথে বিধিনিষেধও শিথিল করেছে সমগ্র বিশ্ব। তবে জিংপিং-এর দেশবাসী এখনও ঘেরাটোপের মধ্যেই দিনগুজরান করছেন। এই আগুনেই ঘি পড়ল রবিবার সকালে। উত্তর-পশ্চিম চিনের শিংজিয়ান অঞ্চলের একটি বহুতল ভবনে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ১০ জনের মৃত্যুর ঘটনায় ক্ষোভে ফেটে পড়েছেন চিনের জনতা। সোশ্যাল মিডিয়াতে ইতিমধ্যেই ছড়িয়ে পড়েছে সেই প্রতিবাদের (China Protest) ভিডিও।

আরও পড়ুন- 26/11 মুম্বাই হামলার দিনে অনুপ্রবেশের চেষ্টা ব্যর্থ করেছে সেনা, গুলিতে আহত পাকিস্তানি নাগরিক

- Advertisement -

প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার শিংজিয়ানের উরুমকি অঞ্চলে একটি বহুতল ভবনে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ১০ জনের মৃত্যু হয়। ইন্টারনেটে অনেকেই ঘটনার ক্ষোভ উগড়ে জানিয়েছেন, আগুন লাগা সত্ত্বেও ভবনের বাসিন্দারা বাইরে বেরোতে পারেননি, কেননা সেখানে আংশিক লকডাউন জারি করা ছিল। যদিও এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে সশহরের প্রশাসন। ঘটনার প্রতিবাদে শনিবার রাতে চিনের সবচেয়ে জনপ্রিয় শহর তথা অর্থনৈতিক ক্ষেত্র সাংহাইতে জড়ো হন এবং রবিবার সকালে প্রতিবাদ বিশাল আকার ধারঙ করে। প্রতিবাদীদের একটি দল চিনের কমিউনিস্ট শাসনের পতনের দাবি করে।

আরও পড়ুন- দ্বিতীয় বিয়ের শাস্তি, স্ত্রীর মারে মৃত্যু স্বামীর

তাঁরা বলে, “চিনের কমিউনিস্ট পার্টির শাসন শেষ হোক, জিংপিং-এর শাসন শেষ হোক, উরুমকিকে মুক্ত করা হোক!” প্রত্যক্ষদর্শী এবং সমাজমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিও দেখে অনেকেই বলছেন, শাসকের বিরুদ্ধে অন্যতম বিরল প্রতিবাদ (China Protest) প্রদর্শনে নেমেছে চিনের মানুষ। প্রতিবাদীদের সরাতে বিশাল পুলিশ বাহিনী নামে। ভাইরাল হওয়া ভিডিওগুলিতে দেখা গিয়েছে, জনগণকে ছত্রভঙ্গ করতে বিপুল পুলিশবাহিনী চেষ্টা চালাচ্ছে। কিন্তু তাঁদের মধ্যে থেকে স্লোগান উঠছে, “মানুষের সেবায় লাগুন। আমাদের হেলথ কোড চাই না। আমরা স্বাধীনতা চাই”।