নেপালের প্রধানমন্ত্রী সাদরে গ্রহণ করলেন মোদীকে, জেনে নিন নমোর কর্মসূচী

0
44

কাঠমান্ডু: পূর্ব নির্ধারিত সূচী মেনেই নেপাল পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। প্রতিবেশী দেশে পৌঁছেই সেই দেশের প্রধানমন্ত্রী শের বাহাদুর দেউবার থেকে পেয়েছেন উষ্ণ অভ্যর্থনা। সেই ছবিও টুইটে শেয়ার করেছেন মোদী। আজ সোমবার বুদ্ধপূর্ণিমা উপলক্ষে এক দিনের নেপাল সফরে গিয়েছেন মোদী। একাধিক অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার সঙ্গেই তিনি নেপালের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে করবেন দ্বিপাক্ষিক বৈঠক।

নেপাল পৌঁছেই নরেন্দ্র মোদী লুম্বিনীর বিখ্যাত মায়া দেবী মন্দির পরিদর্শন করেছেন। করেছেন প্রার্থনাও। মোদীর সঙ্গেই ছিলেন নেপালের প্রধানমন্ত্রী দেউবা। ভারতের প্রধানমন্ত্রীর যোগ দেওয়ার কথা রয়েছে বুদ্ধ পূর্ণিমার অনুষ্ঠানে। ২০১৪ সালে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হওয়ার পর এটি প্রধানমন্ত্রী মোদীর পঞ্চম নেপাল এবং প্রথম লুম্বিনি সফর। মোদীর ধর্মীয় অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার সঙ্গেই লুম্বিনিতে দ্বিপাক্ষিক কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক করার কথা রয়েছে নেপালের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে।

নেপাল সফরের আগেই রবিবার প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, “আমার সফরের উদ্দেশ্য হল এই সময়-সম্মানিত সম্পর্কগুলিকে উদযাপন করা এবং আরও গভীর করা যা শতাব্দীর পর শতাব্দী ধরে গড়ে উঠেছে এবং আমাদের মিশে যাওয়ার দীর্ঘ ইতিহাসে লিপিবদ্ধ হয়েছে।”

উল্লেখ্য, গত মাসের শুরুতেই ভারতে এসেছিলেন নেপালের প্রধানমন্ত্রী। সেই সময়ে মোদীর সঙ্গে তাঁর গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক হয়েছিল। সাম্প্রতিক ভারত সফরের সময় নেপালের প্রধানমন্ত্রী শের বাহাদুর দেউবা নয়াদিল্লি এবং বারাণসী সফর করেন যেখানে তিনি কাশী বিশ্বনাথ এবং কাল ভৈরব মন্দিরে প্রার্থনা করেন । সেই সঙ্গেই বারাণসীর ললিতাঘাটে নেপালের পশুপতি নাথ মন্দিরে বিধবাদের জন্য একটি আশ্রয় কেন্দ্রের ভিত্তি স্থাপন করেন। নেপাল সফরের আগে এক বিবৃতিতে নমো বলেছেন, তিনি গত মাসে ভারত সফরের সময় তাদের “উৎপাদনশীল” আলোচনার পরে দেউবার সাথে আবার দেখা করার অপেক্ষায় ছিলেন। উভয় পক্ষই জলবিদ্যুৎ, উন্নয়ন এবং সংযোগ সহ একাধিক ক্ষেত্রে সহযোগিতা সম্প্রসারণের জন্য ভাগ করা বোঝাপড়ার উপর ভিত্তি করে গড়ে তোলার জন্য তাদের অভিপ্রায় ব্যক্ত করেছে।” দুই দেশের বিদেশমন্ত্রকের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, “বৈঠক চলাকালীন, তারা নেপাল-ভারত সহযোগিতা এবং পারস্পরিক স্বার্থের বিষয়ে মতামত বিনিময় করবেন।”