সন্ত্রাসের জন্য পাকিস্তানকে দায়ী করা অন্যায়, আফগান প্রেসিডেন্টকে বললেন ইমরান

তালিবানদের হামলার জেরে বিপর্যস্ত আফগানিস্তান। জঙ্গিদের প্রত্যক্ষ এবং পরোক্ষা মদত দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে।

0
350

খাস খবর ডেস্ক: তালিবানদের হামলার জেরে বিপর্যস্ত আফগানিস্তান। জঙ্গিদের প্রত্যক্ষ এবং পরোক্ষা মদত দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে। এই অবস্থায় উজবেকিস্তানে মুখোমুখি হলেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান এবং আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট আশরাফ গানি।

আরও পড়ুন- নোটবুকে লেখা মেসির প্রতিটা গোলের তথ্য, বৃদ্ধ ভক্তকে চমক দিলেন আর্জেন্টাইন তারকার

উজবেকিস্তানের রাজধানী তাশখন্দে দু’দেশের শীর্ষ নেতাদের মধ্যে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। তাশখন্দে মধ্য ও দক্ষিণ এশিয়ার আন্তর্জাতিক সম্মেলনের অবকাশে শুক্রবার পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন আফগান প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনি।

আরও পড়ুন- ফের শুভেন্দুর বাড়িতে হানা, শান্তিকুঞ্জের ভিডিওগ্রাফি করল সিআইডি

সাক্ষাতের আগে তাশখন্দ সম্মেলনে গনি ও খান পরস্পরকে আক্রমণ করে বক্তব্য রাখেন। প্রেসিডেন্ট গনি বলেন, প্রায় ১০ হাজার বিদেশি জঙ্গি বর্তমানে আফগানিস্তানে অবস্থান করছে এবং তারা সরকারের বিরুদ্ধে তালিবানের হয়ে যুদ্ধ করছে। এছাড়া, আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষকরাও বলছেন, বৈশ্বিক সন্ত্রাসীদের সঙ্গে তালিবানের সম্পর্ক ছিন্ন হয়নি।

আরও পড়ুন- ‘তৃণমূল করত বলেই ছেলে খুন হয়েছে’, অভিযোগ বাবার

প্রেসিডেন্ট গনি বলেন, “প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ও পাকিস্তানি জেনারেলরা তাকে বহুবার বলেছেন, তারা তালেবানের হাতে আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ গ্রহণকে পাকিস্তানের স্বার্থবিরোধী বলে মনে করেন। তারা তালেবানকে রাজনৈতিক উপায়ে সংকট সমাধানে রাজি করানোর ‘সর্বোচ্চ চেষ্টা’ করবেন বলেও কাবুলকে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। কিন্তু বাস্তবে পাকিস্তানে যেসব নেটওয়ার্ক তালেবানকে সমর্থন করে তারা এখন আফগানিস্তানে তালিবান হামলার ফলে সৃষ্ট ধ্বংসলীলায় আনন্দ উদযাপন করছে।”

পালটা জবাব দিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। তিনি বলেছেন, “তালিবানকে আলোচনার টেবিলে বসানোর জন্য পাকিস্তান ওই গোষ্ঠীর ওপর বহুবার ব্যাপক চাপ সৃষ্টি করেছে। আমরা পাকিস্তানে তালেবানের বিরুদ্ধে অভিযান চালানো ছাড়াও আরও বহুভাবে এই প্রচেষ্টা চালিয়েছি যাতে তালেবান রাজনৈতিক উপায়ে সংকট সমাধানের জন্য আলোচনার টেবিলে বসে।”

আরও পড়ুন- ‘বিজেপি না ছাড়লে তোকে নিয়ে ফুটবল খেলব’’- এবার সন্ত্রাসেও ‘খেলা হবে’ স্লোগান

একই সঙ্গে পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান আরও বলেছেন, “আফগানিস্তানের শান্তি প্রক্রিয়ায় পাকিস্তানকে যাতে বন্ধু দেশ হিসেবে ভাবা হয় সেজন্যই আমি গত নভেম্বরে মাসে কাবুল সফরে গিয়েছিলাম। আফগানিস্তানে যা কিছু ঘটে তার সবকিছুর জন্য পাকিস্তানকে দায়ী করা অত্যন্ত অন্যায় ও অবিচারমূলক।”

প্রতীকী ছবি

বৈঠকে দু’দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের পাশাপাশি পাকিস্তানের সেনা গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই’র প্রধান জেনারেল ফয়েজ হামিদ উপস্থিত ছিলেন। দ্বিপক্ষীয় এ বৈঠকে তালেবান উত্থানকে কেন্দ্র করে দু’দেশের মধ্যকার উত্তেজনা প্রশমনের চেষ্টা করা হলেও ঠিক কী বিষয়ে তারা আলোচনা করেছেন তা গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়নি।