টানা দ্বিতীয়বারের জন্য ফ্রান্সের নির্বাচিত হলেন ম্যাক্রোঁ, গো হার হার প্রতিদ্বন্দ্বীর

0
21

খাস খবর ডেস্ক: এসে গেল হাতে গরম চূড়ান্ত ফলাফল। ফ্রান্সের রাষ্ট্রপতি থাকছেন ইমানুয়েল ম্যাক্রো-ই। চূড়ান্ত রানঅফ ভোটে তিনি ডানপন্থী মারিন লে পেনকে এক বিশাল ব্যবধানে পরাস্ত করেছেন। এর ফলে গত ২ দশকের মধ্যে ফের কোনও রাষ্ট্রপ্রধান পুনঃনির্বাচিত হলেন ফ্রান্সে।

আরও পড়ুন: কোন বিদেশি শক্তির ষড়যন্ত্রে ইমরান খান ক্ষমতাচ্যুত, উত্তর পাওয়া গেল অবশেষে

গত ২ দশকের মধ্যে জ্যাক শিরাক ছিলেন শেষ ফরাসি রাষ্ট্রপতি, যিনি টানা দুবার নির্বাচিত হন। অতঃপর দুই দশকে প্রথম ব্যক্তি হিসেবে ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ-ই সে নজির স্পর্শ করলেন। রানঅফ ভোটে তাঁর প্রাপ্ত ভোটের পরিমাণ ৫৮.৮ শতাংশ। অন্যদিকে ডানপন্থী মারিন লে পেন পেয়েছেন ৪১.২ শতাংশ ভোট।

অর্থাৎ ফরাসি রাষ্ট্রপতি যে তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বীকে কার্যত ধূলিসাৎ করে দিয়েছেন, তা বলাই যায়। যদিও আগের তুলনায় নিজের ভোটের পরিমাণ বাড়াতে সক্ষম হয়েছেন লে পেন। উল্লেখ্য, বামপন্থী প্রার্থী এদিকে জা লুক মিনশঁ নির্বাচনের প্রথম অভূতপূর্ব ভাল ফল করে রানঅফ পর্বে নির্ধারকের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছিলেন। তিনি লে পেনের বিরুদ্ধে সতর্ক করে দিয়েছিলেন ভোটারদের। স্লোগান তুলছিলেন, “লে পেনকে একটি ভোটও নয়।” অতঃপর মধ্যপন্থী প্রার্থী ম্যাক্রোঁর সমর্থনে-ও এগিয়ে আসেন তিনি।

খাস খবর ফেসবুক পেজের লিঙ্ক:
https://www.facebook.com/khaskhobor2020/

চ্যাম্প ডি মার্শ পার্কের বাইরে একটি জায়েন্ট স্ক্রিনে এদিন ম্যাক্রোঁর বিজয়ের খবর প্রকাশিত হয়। এ সময় উল্লাসে ফেটে পড়েন তাঁর সমর্থকেরা। অন্যদিকে এতে হতাশ হয়ে হট্টগোল শুরু করে লে পেনের সমর্থকেরাও। এদিকে টানা দ্বিতীয়বার ক্ষমতায় আসার পর আইফেল টাওয়ার গ্রাউন্ডে জাতির উদ্দেশ্যে এক ভাষণ দেন ম্যাক্রোঁ। সেখানে দেশবাসীকে কৃতজ্ঞতা জানিয়ে তিনি বলেন, “আমি একটি সুষ্ঠু সমাজব্যবস্থা চাই। যেখানে নারী এবং পুরুষের সমান অধিকার। নতুন প্রজন্মের স্বার্থে আমরা একসঙ্গে কাজ করব।”