দুর্গাপুজোর সময় কুমিল্লার ঘটনার পুনরাবৃত্তি এড়াতে তৎপর হাসিনার সরকার

0
27
Sheikh Hasina

খাস ডেস্ক: গতবছর কুমিল্লার ঘটনার পুনরাবৃত্তি এড়াতে এবার জোর কদমে প্রস্তুত হাসিনার সরকার। কড়া নিরাপত্তাবেষ্টনীতে এবছর বাংলাদেশে দুর্গাপুজো পালিত হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। যার জন্য পুজো কমিটিগুলির পাশাপাশি প্রশাসনকেও নির্দেশ পাঠিয়েছেন বাংলাদেশ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা (Sheikh Hasina)।

জানা গিয়েছে, পুজো মন্ডপ গুলিতে সিসি ক্যামেরার পাশাপাশি নিয়োগ করা হবে নিরাপত্তাবাহিনী। সেইসঙ্গে স্বেচ্ছাসেবক বাহিনীকেও সর্বদা সজাগ থাকার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। এছাড়াও পুলিশ সদর দফতর ও জেলা পর্যায়ে কন্ট্রোল রুম খোলা হবে, সেইসঙ্গে থাকবে ভ্রাম্যমাণ আদালত, বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান।

- Advertisement -

আরও পড়ুন- শেষ হল ১মাসেরও বেশি সময়ের লড়াই, প্রয়াত কমেডিয়ান রাজু শ্রীবাস্তব

উল্লেখ্য, গতবছর আনন্দ-উৎসব দুর্গাপুজো কার্যত আতঙ্কে পরিণত হয়েছিল বাংলাদেশের মানুষদের কাছে। পুজোর সময় বাংলাদেশের কুমিল্লা শহরের একটি মন্দিরে কোরান অবমাননার ভুয়ো অভিযোগ তুলে কয়েকটি মন্দিরে হামলা চালায় দুষ্কৃতিরা। ভাঙা হয় দুর্গাপ্রতিমা, লণ্ডভণ্ড হয়ে যায় পুজো মন্ডপ। সেইসঙ্গে চাঁদপুর, চট্টগ্রাম, নোয়াখালী, কক্সবাজারসহ একাধিক এলাকায় হিন্দুদের বাড়ি ও মন্দিরের উপর হামলা চালানো হয়। পুজোর মাঝেই পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ বেঁধে যায় দুষ্কৃতিদের। পরিস্থিতি সামাল দিতে রীতিমত নাজেহাল হয়ে যায় প্রশাসন।

সেইসঙ্গে বাংলাদেশি সংখ্যালঘুদের ওপর এহেন হামলার ঘটনায় তীব্র নিন্দা হয় ভারতেও। সোশ্যাল মিডিয়ায় হামলার পরের অবস্থার ছবি ঘুরতে থাকে। তাই এবছর কোনরকম ঝুঁকি নিতে নারাজ বলে জানিয়েছে হাসিনার সরকার। যদিও এবছর এহেন কোনও হামলার সংকেত তাঁদের কাছে নেই বলে জানিয়েছে প্রশাসন। তবুও, গতকাল (মঙ্গলবার) কুমিল্লার স্মৃতি উসকে দেয় বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার ঘটনা।

আরও পড়ুন- কংগ্রেস সভাপতি পদে লড়াইয়ের বিষয়ে কি বললেন গেহলট 

পুজোর আগেই মন্দিরে ঢোকে দুর্গাপ্রতিমা ভাঙার অভিযোগ ওঠে। মেহেন্দিগঞ্জের ওই মন্দিরের কর্তৃপক্ষ জানায়, গত ১৮ সেপ্টেম্বর মন্দিরে ঢুকে দেখা যায় প্রতিমা বিকৃত অবস্থায় রয়েছে। দুর্গা প্রতিমার ছয়টি হাত, অসুরের নাক-মাথা, সরস্বতী এবং লক্ষ্মীর দুটি করে হাত, গণেশের চারটি হাত এবং কার্তিকের মাথা ভাঙা অবস্থায় পড়ে রয়েছে। এমনকি কয়েকটি প্রতিমার মাথার চুলও মাটিতে পড়েছিল। এবার পুজোর মধ্যে এই ধরণের হামলা এড়াতে শেখ হাসিনার (Sheikh hasina) প্রশাসন কতটা সফল হবে, তার উত্তর সময়ই দেবে।