দেশের হস্তক্ষেপে অবশেষে মুক্তি পেলেন ড্যানি ফেন্সটর

0
47

খাস খবর ডেস্ক: ড্যানি ফেন্সটর। গত কয়েক দিন ধরেই নামটি আলোচনার অন্যতম কেন্দ্রবিন্দুতে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এই সাংবাদিককে সম্প্রতি ১১ বছরের কারাদণ্ড দেয় মায়ানমারের সামরিক আদালত। তাঁর বিরুদ্ধে দেশদ্রোহিতা এবং জনগণকে সরকারের বিরুদ্ধে উস্কে দেওয়ার অভিযোগ ছিল।

আরও পড়ুন: কাবুলের মিনিবাস বিস্ফোরণে দায় স্বীকার আইএসের

এই অভিযোগ প্রমাণিত হওয়া বা না হওয়া অনেক পরের কথা। ফেন্সটরের গ্রেফতারের খবর সামনে আসামাত্রই নড়েচড়ে বসে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। ফেন্সটরের মুক্তি চেয়ে তারা ক্রমাগত চাপ দিতে থাকে জান্তা সরকারের ওপর। তাতেই কাজ হল। অবশেষে ড্যানি ফেন্সটরকে মুক্তি দিতে কার্যত বাধ্য হল মায়ানমারের জান্তা সরকার।

“ফ্রন্টিয়ার মায়ানমার” নামক সংবাদমাধ্যমের ব্যবস্থাপনা সম্পাদক ছিলেন ফেন্সটর। গত ফেব্রুয়ারি মাসে সু চি সরকারকে উচ্ছেদ করে সম্পূর্ণ অবৈধভাবে ক্ষমতা দখল করে জান্তা সরকার। তখন থেকেই নজরে ছিলেন তিনি। এরপর মে মাস নাগাদ বার্মা ছাড়ার চেষ্টা করলে ইয়াংগন বিমানবন্দরে তাঁকে গ্রেফতার করা হয়। শেষপর্যন্ত গত শুক্রবার তাঁকে ১১ বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত করেছিল জান্তা-নিয়ন্ত্রিত সামরিক আদালত।

আরও পড়ুন: লিভারপুলে ট্যাক্সি-বিস্ফোরণ, সন্ত্রাসবাদের সিঁদুরে মেঘ দেখছে প্রশাসন

সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, সেই দণ্ড বজায় রাখতে পারেনি জান্তা বাহিনী। মায়ানমারে আমেরিকার রাষ্ট্রদূত বিল রিচার্ডসনের হস্তক্ষেপে মুক্তি মিলেছে ফেন্সটরের। এবারে তিনি দেশে ফিরে যেতে চান বলে খবর।