হাইওয়েতে উড়ছে রাশি রাশি ডলার, পুলিশের সাবধানবাণী উপেক্ষা করেই লাগল কুড়িয়ে নেওয়ার ধুম

0
37

খাস খবর ডেস্ক: আচ্ছা মনে করুন, আপনি রাস্তায় বেরিয়েছেন। হাঁটতে হাঁটতে হঠাৎ আপনার চক্ষু চড়কগাছ। সেইসঙ্গে বুকে দুমদাম পিটতে শুরু করল হাতুড়ি। কারণ? রাস্তায় দুইধারে পড়ে গোছা গোছা নোট। ঠিক যেভাবে পাতাঝরার মরশুমে রাশিকৃত পাতা পড়ে থাকে। কী করবেন আপনি তখন? পারবেন নিজের সংযমকে ধরে রাখতে?

শুক্রবার এমনই মুহূর্তের সাক্ষী মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। সেখানে কিন্তু অনেকেরই সংযমের বাঁধ ভেঙেছে। যা জানাচ্ছে এএফপি।

আরও পড়ুন: টিভির পর্দায় নারীদের উপস্থিতি নিষিদ্ধ করল তালিবান

ঘটনাটি ক্যালিফোর্নিয়া প্রদেশের অন্তর্ভুক্ত সান দিয়েগোতে। ইন্টারস্টেট ফাইভ হাইওয়েতে একটি ব্যাঙ্কের ডলার বহনকারী ট্রাকের দরজা আচমকাই খুলে গিয়ে গোটা রাস্তায় ছড়িয়ে পড়ে ডলার। কিছু নোট হাওয়ায়ও উড়তে শুরু করে‌। দেখেশুনে পথচলতি মানুষ আর কী করে তৃতীয় রিপুকে বশে রাখেন? হুড়োহুড়ি পড়ে যায় ডলার কুড়ানোর।

খবর পেয়ে অতি সত্বর ঘটনাস্থলে চলে আসে পুলিশ। তাঁরা আমজনতাকে অনুরোধ করেন, যাতে কুড়িয়ে পাওয়া নোটগুলি ফিরিয়ে দেওয়া হয়। কিন্তু কবি তো সেই কবেই বলে গিয়েছেন— “অর্থই অনর্থের মূল”। বরং এই নিষেধাজ্ঞার পর ডলার কুড়ানোর ধুম আরওই বেড়ে গিয়েছিল মানুষের মধ্যে। তাঁরা যত বেশি সম্ভব ডলার কুড়িয়ে নিয়ে হাঁটা লাগাতে থাকে বাড়ীর দিকে। সোশ্যাল মিডিয়ায় কল্যাণে একটি ভিডিও এখন ভাইরাল। তাতে জনাকয়েককে এই কুড়িয়ে পাওয়া ডলার আকাশে ছুঁড়ে উল্লাসে মেতে উঠতেও দেখা গিয়েছে।

একটি সাংবাদিক সম্মেলনে ক্যালিফোর্নিয়া হাইওয়ে পুলিশ গোটা ঘটনার জন্য উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। কার্টিস মার্টিন নামের কর্তব্যরত এক সার্জেন্ট জানান, “এই ডলারের মালিক একটি ব্যাঙ্ক। যারা যারা এগুলো কুড়িয়ে নিয়েছেন, প্রত্যেককে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে হস্তান্তর করতে অনুরোধ করা হচ্ছে।” জানা গিয়েছে, এই ঘটনায় দুজনকে গ্রেফতারও করেছে পুলিশ। এরা ডলারগুলি হাতিয়ে পালানোর চেষ্টা করছিল। কিন্তু ভুল করে বাইরে থেকে গাড়ীর দরজায় তালা লাগিয়ে ফেলায় সে চেষ্টা ব্যর্থ হয়।

আরও পড়ুন: আফগানিস্তান থেকে প্রবাসীদের দেশে ফেরাবে মার্কিন সরকার

এই ঘটনা উল্লেখ করে মার্টিন সাবধান করে দিচ্ছেন। “রাস্তায় সিসিটিভির অভাব নেই। কাজেই যারা ডলার নিয়েছে, তাদের ফুটেজ দেখে খুঁজে বের করতে অসুবিধা হবেনা।” হুঁশিয়ারি দেন, “পুলিশ তাদের দরজায় কড়া নাড়ার আগে অনুরোধ করা হচ্ছে, যেন তাঁরা নিজে থেকেই নোটগুলি ফেরত দিয়ে যান।”