পাকিস্তানে সেনাঘাঁটি তৈরি করতে প্রস্তুত চিন, শাহবাজ সরকারের ‘সুরক্ষার’ উপর ভরসা নেই

0
109

করাচি: গত ২৬ এপ্রিল করাচি বিশ্ববিদ্যালয়ে আত্মঘাতী হামলায় তিন চিনা শিক্ষার্থী নিহত হওয়ার পর উদ্বিগ্ন জিন পিং এর দেশ। চিন তাদের নাগরিকদের নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বিগ্ন। এক বছরে পাকিস্তানে চিনা নাগরিকদের উপর এটি তৃতীয় সন্ত্রাসী হামলা। এই বিষয়ে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ বলেছেন যে, তার সরকার দেশে বহু বিলিয়ন ডলারের চিন-পাকিস্তান অর্থনৈতিক করিডোরের বিভিন্ন প্রকল্পে কাজ করা চিনা প্রতিষ্ঠান এবং নাগরিকদের উচ্চ স্তরের নিরাপত্তা প্রদানের জন্য প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। কিন্তু তাতেও লাভ হবে না। এবার পাকিস্তানে সেনাঘাঁটি তৈরি করতে চায় চিন।

পাকিস্তানে কর্মরত নাগরিকদের সুরক্ষার জন্য লালফৌজ আসতে পারে পাকিস্তানে। এর জেরে চাপে পড়ে গিয়েছে শাহবাজ শরিফের নেতৃত্বে সরকার। পাকিস্তান চিনকে সেনাঘাঁটি তৈরির অনুমতি দিলে কিছুতেই মেনে নেবে না ভারত, আমেরিকা সহ পশ্চিমের দেশগুলি। ইতিমধ্যেই সেনাঘাঁটি তৈরির জন্য জায়গা দেখতে শুরু করেছে চিন। পাকিস্তানের আমেরিকার প্রভাব থাকা অঞ্চলগুলি চিনের পছন্দের তালিকায় রয়েছে। শুধু তাউ সেনাঘাঁটি তৈরিতে পাক সরকার ছাড়পত্র দিলে পাবে বিশেষ সুবিধাও।

আরও পড়ুন: রোয়িং চলাকালীন আচমকা ঝড়বৃষ্টি, মৃত সাউথ পয়েন্টের দুই ছাত্র

 

উল্লেখ্য, এর আগে চীনের বিদেশ নিরাপত্তা কমিশনার চেং গুওপিং -এর নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দলের সঙ্গে আলোচনায় শাহবাজ শরিদ পাকিস্তানের বিদেশ নীতিতে চিনের গুরুত্বের ওপর জোর দেন। সর্ব-আবহাওয়া কৌশলগত সম্পর্ককে আরও গভীর করার জন্য সরকারের সংকল্প পুনর্ব্যক্ত করেন। শাহবাজ করাচি হামলার পুঙ্খানুপুঙ্খ তদন্ত করার জন্য পাকিস্তানের প্রতিশ্রুতি জানিয়েছেন। হামলার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেফতার করে আদালতে পাঠানো হবে বলে জানান তিনি।