পাকিস্তানকে ২৩০ কোটি দিচ্ছে চিন, নেপথ্যে কোন উদ্দেশ্য

0
16

খাস খবর ডেস্ক: শ্রীলঙ্কার মত দুরাবস্থা হয়েছে পাকিস্তানের-ও। দেশটিতে বৈদেশিক মুদ্রার তহবিল, বলতে গেলে প্রায় তলানিতে এসে ঠেকেছে। এ অবস্থায় উদ্বারকারী হয়ে এগিয়ে এল বন্ধুরাষ্ট্র চিন। জানা যাচ্ছে, চিনের একাধিক ব্যাংকের কনসোর্টিয়াম ২৩০ কোটি ডলার অনুদান দিতে চলেছে শাহবাজ শরিফ সরকারকে।

আরও পড়ুন: স্বৈরাচারী হয়েও মানবিক, ভূমিকম্প বিধ্বস্তদের জন্য বিশেষ ব্যবস্থা তালিবানদের

পাকিস্তানের অর্থমন্ত্রী মিফতাহ ইসমাইল এ প্রসঙ্গে জানান, “আগামী দু-তিনদিনের মধ্যেই চিনের অনুদান আমাদের হাতে এসে যাবে। এর ফলে মুদ্রা ভাণ্ডার কিছুটা ভর্তি হওয়ার পাশাপাশি মুদ্রার অবমূল্যায়ন-ও রোধ করা যাবে।” উল্লেখ্য, চলতি বছরে পাকিস্তানি মুদ্রার দাম ডলারের তুলনায় ৩৪ শতাংশ কমে গিয়েছে।

পাকিস্তানের বিদেশমন্ত্রী বিলাওয়াল ভুট্টো-ও টুইট করে চিনা রাষ্ট্রপ্রধানকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। তিনি লেখেন, “চিন সব সময়ের জন্য আমাদের বন্ধু। চিনের রাষ্ট্রপতি শি জিনপিংয়ের কাছে আমরা কৃতজ্ঞ।” চিনের বিদেশমন্ত্রী ওয়াং এবং দেশটির সাধারণ মানুষের প্রতিও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন ভুট্টো। কিন্তু কথা তো অন্য জায়গায়। ইতিহাস সাক্ষী থেকেছে, চিন কখনওই বিনা স্বার্থে কাউকে সহায়তা করেনি।

খাস খবর ফেসবুক পেজের লিঙ্ক:
https://www.facebook.com/khaskhobor2020/

এবারেও নিশ্চিতভাবেই কোনও না কোনও উদ্দেশ্যে রয়েছে চিনের। কী সেই উদ্দেশ্যে? ভারতকে চাপে রাখা? নানা কারণে ভারত-চিন বিবাদ এ মুহূর্তে তুঙ্গে। এই অবস্থায় চিন অবশ্যই ভারতের চিরশত্রু পাকিস্তানকে পাশে পেতে চাইবে। যদি তা-ই হয়, পাকিস্তানকে সাহায্য করার নেপথ্যে সে উদ্দেশ্য থাকলে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না। এছাড়া আরও একটি উদ্দেশ্য থাকতে পারে জিনপিং সরকারের। হয়ত পাকিস্তানের বাজার আরও বেশি করে দখল করতে চায় তারা।