রাষ্ট্রপতিদের বৈঠকের আগে তাইওয়ান নিয়ে পরস্পরকে সাবধান করল চীন-আমেরিকা

0
60

খাস খবর ডেস্ক: তাইওয়ান ইস্যুতে পারদ ক্রমেই চড়ছে। সোমবারই এই ইস্যু এবং বাণিজ্য, মানবাধিকারের মত আরও কয়েকটি বিষয় নিয়ে একটি ভার্চুয়াল বৈঠকে বসার কথা মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এবং চীনের রাষ্ট্রপতি শি জিনপিংয়ের। তার ঠিক আগে দুই দেশের কূটনীতিকরা পরস্পরকে সতর্ক করে রাখলেন।

আরও পড়ুন: ইকোনমি ক্লাসের ভাড়া ছুঁল বিজনেস ক্লাসকে, মাথায় হাত যাত্রীদের

জানা গিয়েছে, এই আলোচনার প্রস্তুতি নিয়ে গত শুক্রবার চীনা বিদেশমন্ত্রী ওয়াং ই-র সঙ্গে আমেরিকার পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেনের দীর্ঘক্ষণ কথা হয়। তখনই পরস্পর পরস্পরকে সতর্ক করেন। মার্কিন বিদেশমন্ত্রী তাইপের ওপর বেজিংয়ের কূটনৈতিক এবং সামরিক চাপ প্রয়োগ নিয়ে উদ্বিগ্ন এবং হতাশ হন। অন্যদিকে ওয়াং ই জানান, তাইওয়ানের স্বাধীনতার উদ্দেশ্যে মার্কিনীরা যদি কোনও পদক্ষেপ নেন, তা বিপজ্জনক হতে পারে।

আরও পড়ুন: দুর্ভিক্ষ আর কড়া শীতে শিশু-মহামারীর অশনি সংকেত আফগানিস্তানে

তাইওয়ান সেই ১৯২৭ থেকে চীনের মাথাব্যাথার কারণ। সেসময় চীনে গৃহযুদ্ধ লেগে গিয়েছিল। পরবর্তীকালে ১৯৭৯ সাল থেকে তাইওয়ান ইস্যুতে চীন-আমেরিকা তরজা তুঙ্গে। কিন্তু এভাবে একে অপরকে মিষ্টিমুখে সাবধান হুমকির নজির খুব কমই রয়েছে। এখন সোমবারের বৈঠক শেষে কী পরিস্থিতি দাঁড়ায়, সেটাই দেখার।