বিনামূল্যে দেওয়া হবে করোনা ভ্যাকসিন, বড় সিদ্ধান্ত বাংলাদেশের

0
243

ঢাকাঃ বিনামূল্যে দেশবাসীকে করোনা ভ্যাকসিন দেবে বাংলাদেশ। ঢাকায় মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে সচিব খন্দরার আনোয়ারুল ইসলাম এমনটাই জানিয়েছেন।

ঢাকায় মন্ত্রিপরিষদের সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম সাংবাদিক সম্মেলনে জানিয়েছেন, করোনা ভ্যাকসিনের ৩ কোটি ডোজ ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটের  কাছ থেকে কিনে দেশের দেড় কোটি মানুষকে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে তা দেওয়া হবে। প্রত্যেকের জন্য ভ্যাকসিনের দু’ডোজ প্রয়োজন। সেই হিসেবেই সেরাম থেকে ৩ কোটি ডোজ কেনার পরিকল্পনা রয়েছে।

- Advertisement -

এদিন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার ভারচুয়াল বৈঠকে করোনার দ্বিতীয় ধাক্কা মোকাবিলা ও ভ্যাকসিন নিয়ে সর্বশেষ অগ্রগতি সম্পর্কে জানানো হয়। ঢাকার গণভবন প্রান্ত থেকে প্রধানমন্ত্রী এবং সচিবালয়ের মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে মন্ত্রীরা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এই বৈঠকে যোগ দেন। ঘরের বাইরে বের হলে, মাস্ক না পরার অপরাধে সর্বোচ্চ জরিমানায় কাজ না হলে পাশাপাশি জেলের সাজা দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে এদিনের বৈঠকে।

এই বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ”যে করেই হোক, দেশের সকল মানুষের জন্য করোনা প্রতিরোধ ভ্যাকসিন সরবরাহ করতে হবে। এখন আমাদের সবচেয়ে বড় কাজ, দ্রুত ভ্যাকসিন এনে তা সর্বত্র সরবরাহ করা।” এ নিয়ে পরবর্তী বৈঠক বুধবার।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দর আনোয়ারুল ইসলাম বলেছেন, ”অক্সফোর্ডের তৈরি করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিনের জন্য ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট, বাংলাদেশের বেক্সিমকো ফার্মা ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মধ্যে ত্রিপাক্ষিক চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। চুক্তি অনুযায়ী বাংলাদেশকে অক্সফোর্ডের ৩ কোটি ডোজ ভ্যাকসিন সরবরাহ করবে সিরাম ইনস্টিটিউট। বাংলাদেশের অর্থ বিভাগ ভ্যাকসিন কেনার জন্য স্বাস্থ্যসেবা বিভাগকে ৭৩৫ কোটি ৭৭ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা বরাদ্দ করেছে। ভ্যাকসিন কেনার জন্য ক্রয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটিতে প্রস্তাব পাঠাবে।”

তিনি আরও বলেছেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার একটা গাইডলাইন আছে। প্রথম কারা পাবে, দ্বিতীয় ধাপে কারা পাবে সে অনুযায়ী স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় একটা পরিকল্পনা তৈরি করছে। যারা ঝুঁকিপূর্ণ পেশায় রয়েছেন – পুলিশ, প্রশাসনের লোকজন যারা সরাসরি ময়দানে নেমে চাকরি করছেন, তাঁরাই সর্বাগ্রে পাবেন।