২২ বছরের ছাত্রকে বিয়ে করে সমালোচিত ৪০-এর শিক্ষিকার রহস্যজনক মৃত্যু, আটক স্বামী

0
84

খাস ডেস্ক: ২২ বছরের ছাত্রকে বিয়ে করে শিরোনামে উঠে এসেছিলেন বছর চল্লিশের এক শিক্ষিকা। বাংলাদেশের এই খবর চাঞ্চল্য ছড়িয়েছিল সর্বত্র। তবে সংসার সুখ টিকল না। বেশিদিন। রবিবার সকালে ভাড়া বাড়ি থেকে উদ্ধার হল ওই মহিলার মৃতদেহ। আত্মহত্যা নাকি খুন খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

আরও পড়ুন: নিখোঁজ নাবালিকা, ৬ বছর পর মেয়েকে ফিরিয়ে দিল ধর্ষণে অভিযুক্তর ছবি 

- Advertisement -

সূত্রে খবর, এদিন নাটোর শহরের বলারিপাড়া এলাকায় ভাড়া বাড়ি থেকে খায়রুন নাহোরের (৪০) দেহ উদ্ধার হয়। মৃত শিক্ষিকার স্বামী মামুন হোসাইন (২২) জানিয়েছেন, শনিবার গভীর রাত ২ টো নাগাদ তিনি বাইরে যান। ফিরে এসে খাইরুনকে ঘরে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখেন। আগুন দিয়ে ওড়না পুড়িয়ে নীচে নামান তাঁকে। স্থানীয় বাসিন্দারা জানতে পেরে ঘরে এসে মৃতদেহ মেঝেতে শোয়া অবস্থায় দেখে। পুলিশের প্রাথমিক অনুমান আত্মহত্যা হলেও মামুন কেন গভীর রাতে বাইরে গিয়েছিল তা জানা যায়নি। এই ঘটনায় পরবর্তী তদন্তের জন্য স্বামীকে আটক করেছে পুলিশ। মৃতদেহের শরীরে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি বলেও জানানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, খায়রুন নাহার পেশায় একটি কলেজের সহকারী অধ্যাপক ছিলেন। ২০২১ এর জুন মাসে সামাজিক মাধ্যমে দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র মামুনের সঙ্গে পরিচয় হয়। কয়েকদিনের মধ্যেই তাঁদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক তৈরি হয়। গত ডিসেম্বর মাসেই দুজনে বিয়ে করে সংসার শুরু করেন। কিন্তু গত ৩১ জুলাই এই অসম বয়সী বিয়ের খবর প্রকাশ্যে আসে। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হতেই সমালোচনার ঝড় ওঠে। তার কয়েকদিন যেতে না যেতেই ওই শিক্ষিকার মৃত্যুর খবর ফের সাড়া ফেলে দিয়েছে।