আমেরিকায় রেকর্ড মুদ্রাস্ফীতি, ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে ভারতও

0
29
Russia-Ukraine

ওয়াশিংটন: মুদ্রাস্ফীতি শুধুমাত্র যে ভারত বা উপমহাদেশে রয়েছে এমনটা নয়। আমেরিকাতেও রয়েছে মুদ্রাস্ফীতি, শুনতে অবাক লাগলেও এটাই সত্যি। আমেরিকাতে মুদ্রাস্ফীতি সমস্ত রেকর্ড ভেঙে দিয়েছে। মার্কিন শ্রম বিভাগের সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, দেশটিতে মূদ্রাস্ফীতি গত ৪১ বছরের রেকর্ড ভেঙে দিয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রে মে মাসে মূদ্রাস্ফীতির হার ছিল চার দশকের সর্বোচ্চ ৮.৬ শতাংশ। তথ্য প্রকাশের পর মার্কিন স্টক মার্কেটের প্রধান সূচক – ডাও জোন্স, ৮৮০ পয়েন্ট বা ২.৭৩% কমে ৩১,৩৯৩ পয়েন্টে বন্ধ হয়েছে।

সেই সঙ্গে S&P-৫০০ ও প্রায় তিন শতাংশ কমেছে। মার্কিন শেয়ারবাজারে দরপতনের প্রভাব সোমবার ভারতীয় বাজারেও পড়েছে। বলা বাহুল্য যে শুক্রবার, সেনসেক্স ১,০১৬ পয়েন্ট বা ১.৮৪ শতাংশ কমে ৫৪,৩০৩ পয়েন্টে নেমেছে। একইভাবে, ন্যাশনাল স্টক এক্সচেঞ্জের নিফটিও ২৭৬.৩০ পয়েন্ট বা ১.৬৪ শতাংশ কমে ১৬,২০২ পয়েন্টে বন্ধ হয়েছে।

- Advertisement -

আরও পড়ুন: “আমার এসএমএসের উত্তর দাও”, ললিত মোদীর ৯ বছর পুরনো টুইট ভাইরাল

মার্কিন শ্রম বিভাগ মে ২০২২-এর তথ্য প্রকাশ করে জানিয়েছে যে, গত মাসে ভোক্তাদের দাম এক বছর আগের তুলনায় ৮.৬ শতাংশ বেড়েছে। এক মাস আগে এপ্রিলে ভোক্তা মূল্য এক বছর আগের একই সময়ের তুলনায় ৮.৩ শতাংশ বেড়েছে। মাসের ভিত্তিতে এপ্রিলের তুলনায় মে মাসে ভোগ্যপণ্যের দাম এক শতাংশ বেড়েছে। এই বৃদ্ধি মার্চের তুলনায় এপ্রিলে ০.৩ শতাংশ বৃদ্ধির পেয়েছে, যা অনেক বেশি। বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, মুদ্রাস্ফীতির জেরে মার্কিন ফেডারেল রিজার্ভ আর্থিক নীতি আরও কঠোর করবে। সেই সঙ্গে সুদের হার বৃদ্ধি করবে।