বালিগঞ্জের সেন্ট লরেন্স স্কুলের বুথে উত্তেজনা, পুলিশকে ধাওয়া করল দুই প্রার্থী

0
19

খাস ডেস্ক: কড়া নিরাপত্তায় শুরু হয়ে গিয়েছে দুই কেন্দ্রে উপনির্বাচন। ১৩৮ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে ভোট কেন্দ্রে। দুই উপনির্বাচন কেন্দ্রে ওয়েবকাস্টিংয়ের মাধ্যমে নজরদারি রাখছে নির্বাচন কমিশন। নিজেদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করছে আমজনতা।

আর এর মাঝেই দফায় দফায় বিক্ষিপ্ত অশান্তির ঘটনা চোখে পড়ছে সকাল থেকে। উপনির্বাচন শুরু হতেই একের পর এক অভিযোগ উঠছে। এবার ভোটদান শুরু হতেই পুলিশকে ধাওয়া করল দুই প্রার্থী। বালিগঞ্জের সেন্ট লরেন্স স্কুলের বুথের ঘটনা। আর এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়াল গোটা এলাকায়।

- Advertisement -

আরও পড়ুন- বারাবনিতে অগ্নিমিত্রাকে ঘিরে বিক্ষোভ, বিজেপি প্রার্থীর গাড়ি লক্ষ্য করে ইটবৃষ্টি-ভাঙচুর

জানা গিয়েছে, এদিন সকাল থেকেই ভোট পর্ব শুরু হয় বালিগঞ্জের সেন্ট লরেন্স স্কুলে। এরপরই ওই বুথে যান বিজেপি প্রার্থী কেয়া ঘোষ ও কংগ্রেস প্রার্থী কামরুজ্জামান চৌধুরী। শুধু তাই নয় এরপরেই বিভিন্ন অভিযোগ তুলে পুলিশকে ধাওয়া করেন বিজেপি প্রার্থী কেয়া ঘোষ। তিনি অভিযোগ করে জানান, বুথের ভিতরে কেন কলকাতা পুলিশ? তাছাড়াও কেন বুথের ভিতরে বিজেপির এজেন্টদের বসতে দেওয়া হচ্ছে না?

উল্লেখ্য, একদিকে বাবুল সুপ্রিয় বিজেপি ছেড়ে তৃণমূল যোগ দেওয়ার ফলে শূন্য হয়েছিল পশ্চিম বর্ধমানের লোকসভা আসন আসানসোল। অন্যদিকে, মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের মৃত্যুতে শূন্য হয় কলকাতার বালিগঞ্জ আসন। মঙ্গলবার সেই দুই আসনে চলেছে ভোটগ্রহণ। এই ভোটগ্রহণ চলবে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত।