আদিবাসী নেতাকে চড় মেরে বিতর্কে জড়ালেন তৃণমূল কাউন্সিলর

0
27

নিজস্ব সংবাদদাতা, অশোকনগর: ফের বিতর্কে জড়াল তৃণমূল৷ কিছুতেই যেন বিতর্কের জের পিছু ছাড়ছে না তৃণমূলের৷ আদিবাসী দিবসে নেতাকে চড় মেরে কাঠগড়ায় তৃণমূল কাউন্সিলর৷ ঘটনায় উত্তপ্ত অশোকনগর৷ বুধবার সকাল থেকে এলাকায় বসানো হয়েছে পুলিশ পিকেট৷

জানা গিয়েছে, মঙ্গলবার বিশ্ব আদিবাসী দিবস উপলক্ষে একটি মিছিলের আয়োজন করা হয়েছিল৷ সেই মিছিল থেকে আওয়াজ ওঠে আদিবাসীদের অনেক কিছু থেকে বঞ্চিত করে রেখেছে রাজ্য সরকার৷ পাশাপাশি রাজ্য সরকারের নেতা নেত্রীদের বিরুদ্ধেও ওঠে স্লোগান৷

- Advertisement -

এরপরেই আদিবাসী নেতার মাইক কেড়ে নিয়ে তাঁকে মারধরের অভিযোগ ওঠে অশোকনগর কল্যাণগড় পুরসভার ২২ নম্বর ওয়ার্ডের খোদ তৃণমূল কাউন্সিলর প্রসেনজিৎ সাহার বিরুদ্ধে৷ ঘটনায় প্রতিবাদ করলে কাউন্সিলরের অনুগামীরাও মারধর করে আদিবাসী সম্প্রদায়ের বেশ কিছু মানুষকে।

ঘটনায় উত্তপ্ত হয়ে ওঠে অশোকনগরের বাইগাছি এলাকা। পাল্টা আদিবাসী সম্প্রদায়ের মানুষরা কাউন্সিলর সহ তার অনুগামীদের মারধর করে বলেও অভিযোগ ওঠে৷ ঘটনায় আহত উভয় পক্ষের কয়েকজন। এরপরে ঘটনাস্থলের পাশেই থাকা তৃণমূলের দলীয় কার্যালয়ের ভিতরে ঢুকে হামলা চালায় উত্তেজিত আদিবাসীরা৷

ছিঁড়ে ফেলে দেওয়া হয় তৃণমূলের ফ্লেক্স, ফেস্টুন সহ দলীয় পতাকা। তবে এই ঘটনায় কাউন্সিলর প্রসেনজিৎ কোনো প্রতিক্রিয়া দিতে চাননি। তবে আদিবাসীদের মারধরের ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন অশোকনগরের তৃণমূলের প্রাক্তন বিধায়ক তথা বর্তমানের অশোকনগর-কল্যানগড় পুরসভার ভাইস চেয়ারম্যান ধীমান রায়৷

গোটা ঘটনায় উত্তপ্ত অশোকনগর। পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে এলাকায় বসানো হয়েছে পুলিশি পিকেট৷ রয়েছে র‍্যাফ। অন্যদিকে, দলীয় কার্যালয় ভাঙচুরের ঘটনার কথা অস্বীকার করেছে আদিবাসীরা৷ ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিশ৷ পাশাপাশি দুপক্ষকে জিজ্ঞাসাবাদ করে ঘটনার সত্যতা যাচাই করার চেষ্টা করছে৷