বেআইনিভাবে মাটি তোলাকে কেন্দ্র করে প্রকাশ্যে তৃণমূল কোন্দল

0
32
discipline Election

মালদহ: ফের প্রকাশ্যে এল শাসক দলের কোন্দল৷ বেআইনিভাবে নদী থেকে মাটি তোলাকে কেন্দ্র করে তৃণমূলের অন্তর্দ্বন্দ্ব এখন খবরের শিরোনামে৷ এই সব বিষয়ে কড়া পদক্ষেপের বার্তা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ তারপরেও মালদহের এই বেআইনি ঘটনায় বেজায় অস্বস্তিতে ঘাষফুল শিবির৷

জানা গিয়েছে, মালদহে নদী থেকে বেআইনিভাবে মাটি তোলা কাণ্ডে নাম জড়িয়েছে রতুয়া ১ নম্বর ব্লকের তৃণমূল সভাপতি ফজলুল হক এবং রতুয়া থানার আইসি সুবীর কর্মকারের৷ এই নিয়ে সরব হয়েছেন রতুয়ার তৃণমূল বিধায়ক সমর মুখোপাধ্যায়৷ তাঁর অভিযোগে সমর্থন জানিয়েছেন জেলা তৃণমূল সভাপতি আবদুর রহিম বক্সি৷ ঘটনায় স্থানীয় পুলিশ আধিকারিকরেও নাম উঠে এসেছে৷

তৃণমূল বিধায়ক সমর মুখোপাধ্যায়ের দাবি, ফজলুল হক আদতে তৃণমূল করেন না৷ তিনি অনেকদিন আগেই বিজেপিতে নাম লিখিয়েছেন৷ রাতে মাটি মাফিয়ারা গিয়ে টাকা জমা দিয়ে আসে থানায়৷ এই বেআইনি ঘটনায় বিজেপির সরাসরি যোগ রয়েছে বলে দাবি করেন তিনি৷ কলকাতায় গিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে বিষয়টি তিনি জানাবেন বলেছেন৷

অন্যদিকে, বিধায়কের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন ব্লক তৃণমূল সভাপতি ফজলুল হক৷ উল্টে তিনি বলেন, “উনি পাগল হয়ে গিয়েছেন।৷ ওঁর জানা উচিত যে, আমি একজন শিক্ষক।৷ তিনি যে কথাগুলো বলছেন, সেগুলি মিথ্যা এবং উদ্দেশ্যপ্রণোদিত।৷ উনি এখানে সিবিআই ডাকুন৷ তদন্ত করে প্রমাণ করুন, এখানে ফজলুল হক জড়িত কিনা৷”