শিশুকন্যাকে ধর্ষণের ঘটনায় উত্তাল কাঁথি, অভিযুক্তকে গ্রেফতারে গড়িমসি অভিযোগ পুলিশের বিরুদ্ধে

0
292

কাঁথি: ৭ বছরের শিশুকন্যাকে ধর্ষণের ঘটনায় উত্তাল কাঁথি পুরসভা পদ্মপুকুরিয়া এলাকায়। অভিযুক্তকে গ্রেফতার করতে গড়িমাসী অভিযোগ উঠলো নাকি মহিলা থানার পুলিশের বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত যুবকের গ্রেফতার দাবিতে সোচ্চার হোন এলাকার কাউন্সিলর থেকে বিজেপির মহিলা মোর্চার সদস্যরা। অবশেষে টনক নড়লো পুলিশের। শনিবার রাত সন্ধ্যায় কাঁথি শহরের সেন্ট্রাল বাসস্ট্যাণ্ড থেকে পুলিশ অভিযুক্ত যুবককে গ্রেফতার করে। কাঁথি মহিলা থানার পুলিশ জানিয়েছে অভিযুক্ত যুবক শঙ্কর দিণ্ডা। তার বাড়ি কাঁথি থানার চালতি গ্রাম পঞ্চায়েতের ফুলবানি এলাকায় বাসিন্দা। রবিবার অভিযুক্তকে কাঁথি মহকুমা আদালতে তোলা হয়।

সূত্রের খবর, গত সোমবার (১৮ ই এপ্রিল) দুপুরে কাঁথির পদ্মপুকুরিয়া এলাকায় মাসীর বাড়িতে বেড়াতে আসে কাঁথি থানার চালতি গ্রাম পঞ্চায়েতের ফুলবানি এলাকায় বাসিন্দা শঙ্কর দিণ্ডা। এরপর সেখানে ফাকা মাঠে মদ্যপান করে শঙ্কর দিণ্ডা সহ বন্ধু বান্ধবরা। এদিকে ওই শিশুকন্যার মা কয়েক বছর আগে ছেড়ে অন্যত্র বিবাহ করেন। ঠাকুমার কাছে থাকতো ওই ৭ বছরের শিশুকন্যা। এরপর শিশুকন্যাকে মোবাইলে প্রলোভন দেখিয়ে যৌন হেনস্থার করে ওই যুবক। এরপর শিশুকন্যাটি বাড়িতে অসুস্থ হয়ে পড়ে। তারপরে শিশুকন্যার রক্তক্ষরণ শুরু হয়। পরিবারের লোকেরা দ্রুত উদ্ধার করে কাঁথি মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করেন। অভিযুক্ত শাস্তির দাবিতে সোচ্চার হোন পরিবার থেকে এলাকার বাসিন্দারা। কিন্তু কাঁথি মহিলা থানায় অভিযোগ জানালেও পুলিশ প্রথমেই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করতে আগ্রহ দেখায়নি বলে অভিযোগ। এরপর শিশুকন্যাকে প্রাথমিক চিকিৎসার পর হোমে রাখা হয়েছে।

আরও পড়ুন-বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাস, তৃণমূল কাউন্সিলরের ছেলের বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ বিজেপি নেতার স্ত্রীর

অভিযুক্তদের গ্রেফতারে দাবিতে পথে নামেন এলাকার কাউন্সিলর সুশীল দাস ও বিজেপির মহিলা মোর্চার সদস্যরা। নির্যাতিতা শিশুকন্যা পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে দেখা করেন মহিলা মোর্চার সদস্যরা। দোষীদের গ্রেফতারের দাবিতে পথে নামেন। অবশেষে কাঁথি মহিলা থানার পুলিশ অভিযুক্তকে গ্রেফতার করতে সচেষ্ট হন। শনিবার সন্ধ্যায় ধর্ষণকারী যুবককে গ্রেফতার করে পুলিশ।

কাঁথি পুরসভা ১৮ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সুশীল দাস বলেন ” দোষীকে উপযুক্ত কঠোর শাস্তির দাবী জানাই। রাজ্যের একাধিক ধর্ষণের ঘটনা বেড়েই চলেছে। দোষীকে উপযুক্ত শাস্তি না দেওয়ার জন্যই অপরাধ প্রবণতা বাড়ছে। সোমবারের ঘটনা ঘটলেও পুলিশ অভিযুক্তকে গ্রেফতার করতে যথেষ্ট গড়িমাসী করছিল। নির্যাতিতার পরিবারের সদস্যদের সব রকমের সহযোগিতার আশ্বাস দেন “। কাঁথি মহিলা থানার ওসি রুমা মণ্ডল বলেন ” অভিযুক্ত যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে। পুরো ঘটনাটি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে “।