33 C
Kolkata
Monday, June 21, 2021
Home খাস পলিটিক্স শান্তি ফেরাতে জোরাল হচ্ছে কেন্দ্রীয় হস্তক্ষেপের দাবি

শান্তি ফেরাতে জোরাল হচ্ছে কেন্দ্রীয় হস্তক্ষেপের দাবি

পরাজয়ে উঠে আসছে অন্তর্ঘাতের তত্ত্ব

কলকাতা: টিট ফর ট্যাট৷ অশান্ত বাংলাকে কড়া হাতে মোকাবিলা করার পরিবর্তে যাবতীয় দায় গেরুয়া শিবিরের ঘাড়ে চাপিয়েই প্রকারন্তরে মুখ্যমন্ত্রী হামলাকারীদের উৎসাহিত করছেন বলে অনুযোগ গেরুয়া শিবিরের৷ তাই তাঁদের মতে, অবিলম্বে বাংলায় শান্তি ফেরাতে হলে একদিকে যেমন আরও বেশি কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করা জরুরি তেমনই অশান্তির কারণ খুঁজতে সিবিআই তদন্ত প্রয়োজন৷

- Advertisement -

আরও পড়ুন: রাজনৈতিক সংঘর্ষে নিহত গৌরবের পরিবারের পাশে বোলপুরের বিজেপি প্রার্থী

ভোট পরবর্তী বাংলার হিংসা নিয়ে ইতিমধ্যে জাতীয় মহিলা কমিশনের দ্বারস্থ হয়েছেন বোলপুরের প্রার্থী তথা বিজেপির অন্যতম থিঙ্ক ট্যাঙ্ক অনির্বাণ গঙ্গোপাধ্যায় সহ অন্য শীর্ষ নেতৃত্বরা ৷ একই সঙ্গে বাংলায় অশান্তির কারণ খুঁজতে সিবিআই তদন্ত চেয়ে চলতি সপ্তাহেই দলের তরফে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন জানাতে চলেছেন বিশিষ্ট আইজীবী গৌরব ভাটিয়া৷ ইতিমধ্যে দিল্লি থেকে রাজ্যে এসেছেন অতিরিক্ত সচিব পর্যায়ের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের একটি দল৷

- Advertisement -

ফলে ভোট মিটলেও সদা ব্যস্ত বোলপুরের পরাজিত বিজেপি প্রার্থী ড: অনির্বাণ গঙ্গোপাধ্যায়৷ একদিকে রাজ্যের চূড়ান্ত অসহযোগিতার মুখে দাঁড়িয়েও কেন্দ্রের আইনি সহায়তার ব্যবস্থা করা অন্যদিকে কর্মীদের মুখে দু মুঠো খাবার তুলে দেওয়ার বন্দোবস্ত করতে সদাব্যস্ত তিনি৷ বলছেন, ‘‘সবজি ব্যবসায়ীকেও এরা ছাড়ছে না৷ বিজেপি করার অপরাধে দোকান পুড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে৷ হামলা, লুঠপাটের সময় মেয়েদের ন্যূনতম শালীনতাটুকুও এরা রক্ষা করছে না৷’’

মুদ্রার অন্য পীঠও রয়েছে৷ উঠে আসছে অন্তর্ঘাতের তত্ত্বও৷ বোলপুরের রাজনীতির পাঁক ঘাঁটতে গেলে উঠে আসছে নানান তথ্য৷ স্থানীয়রা বলছেন, প্রচারে উদয়াস্ত পরিশ্রম করেছেন বিজেপি প্রার্থী৷ খেটেছেন কর্মীরাও৷ প্রচারে বিজেপি প্রার্থীকে ঘিরে ছিল মানুষের স্বত:স্ফূর্ততাও৷ তারপরেও হারতে হল কেন? দলের স্থানীয় কর্মীরা বলছেন, বোলপুর বিধানসভায় গতবারের পরাজিত বিজেপি প্রার্থীকে এবারে এলাকায় দলের প্রচারের জন্য দলগতভাবে দেওয়া হয়েছিল গাড়ি৷ স্থানীয়রা বলছেন, শরীর খারাপের অছিলায় শেষ ১০ দিন প্রচার তো দূরস্ত বাড়ি থেকে বের হননি তিনি৷ এমনকি ফল প্রকাশের পর কর্মীরা মার খাচ্ছেন শুনেও বিজেপির সংশ্লিষ্ট নেতার কোনও ‘ট্রেস’ পাওয়া যাচ্ছে না৷ শুধু এই নেতা নন, দলের জেলাস্তরের একাংশ নেতা ফল ঘোষণার পর থেকেই কার্যত স্বেচ্ছায় নিজেদের ঘরবন্দী করে নেওয়ায় আরও বিপাকে পড়েছেন নিচুতলার কর্মী, সমর্থকেরা৷ যদিও এখানে উল্লেখ করা প্রয়োজন, গত বিধানসভায় বোলপুরে বিজেপি প্রার্থীর প্রাপ্ত ভোট ছিল মাত্র ১৯ হাজার৷ সেখানে এবারে প্রায় পাঁচ গুন ভোট বাড়িয়ে সেই সংখ্যাটাকে প্রায় ১ লাখের কাছে পৌঁছে দিয়েছেন অনির্বাণবাবু৷ স্বভাবতই, হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের পরও স্রেফ একাংশের অন্তর্ঘাতের ফলে অনির্বাণবাবু জিততে না পারায় মন খারাপ কর্মীদেরও৷

ক্ষোভের সুরে তাঁরা বলছেন, ‘‘বছরভর দেখা মেলে না, স্রেফ ভোট আর কেন্দ্রীয় নেতারা এলেই এই জেলা নেতারা সামনে আসে৷ ভাবখানা এমন দেখায়, যেন সারা বছর ওরা মানুষের পাশে থেকে লড়াই করে৷ অথচ তলে তলে সব তৃণমূলের সঙ্গে প্যাক্ট৷ তারই জেরে এবারে বোলপুর সহ জেলার একাধিক নিশ্চিত জেতা আসনও হারতে হল৷’’

- Advertisement -

কর্মীরা বলছেন, ‘আমাদের এলাকায় দলের মধ্যে আদি বনাম নব্যের কোন্দল সামান্য থাকলেও প্রার্থী হিসেবে অনির্বাণবাবু (গঙ্গোপাধ্যায়) তা মিটিয়ে দু’তরফকে নিয়েই কাজ করার চেষ্টা করেছেন৷ সমগ্র বিধানসভা পায়ে হেঁটে বাড়ি বাড়ি প্রচার সেরেছেন৷ প্রচারে মানুষের স্বত:স্ফূর্ততাও দেখা গিয়েছিল৷ কিন্তু অনির্বাণবাবুর মতো কিছু মানুষ প্রার্থী হওয়ায় দলের স্থানীয় কয়েকজন নেতার প্রার্থী হওয়া আটকে গিয়েছিল৷ তাঁদের যোগসাজশেই বিজেপির আশানুরূপ ফল হয়নি৷’’

প্রসঙ্গত, গত লোকসভার ফলাফলের নিরিখে বাংলার ১২১টি বিধানসভা আসনে এগিয়ে ছিল বিজেপি৷ তারপর থেকে একুশের বঙ্গ ভোটের আগে পর্যন্ত বঙ্গে গেরুয়া ঝড় যে আরও তীব্রতর হয়েছে তা একান্তে মেনে নিচ্ছেন তৃণমূলের নেতারাও৷ এহেন পরিস্থিতিতে সেই ১২১টি আসনই বা ধরে রাখা গেল না কেন, দলের অন্দরের আলোচনায় উঠে আসছে সেই প্রশ্নও৷ সূত্রের খবর, অন্তর্ঘাতের বিষয়ে পুঙ্খানুপুঙ্খ তথ্য জোগাড় করার পরই বাংলায় খোলনলচে বদল ঘটানো হবে সংগঠনে৷

- Advertisement -

সপ্তাহের সবচেয়ে জনপ্রিয় সংবাদ

কলকাতা থেকে দফতর সরাচ্ছে রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা, আশঙ্কায় বহু কর্মী

খাস খবর ডেস্ক: কেন্দ্রের অধীনে থাকা রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থার সদর দফতর কলকাতা থেকে সরিয়ে ফেলা হতে পারে অন্য রাজ্যে। যার জেরে কর্মহীন হয়ে পড়তে পারেন...

ভবিষ্যৎ ইনভেস্টরই ঠিক করবে, এফএসডিএল এর বৈঠকের পর বক্তব্য ইস্টবেঙ্গলের শীর্ষকর্তার

কলকাতা: ক্লাব ইনভেস্টর জটের মাঝে অন্ধকার ইস্টবেঙ্গলের ভবিষ্যৎ। ইনভেস্টর শ্রী সিমেন্টের সঙ্গে সম্পর্ক প্রায় শেষ হওয়ার পথে। এরই মধ্যে বুধবার ছিল এফএসডিএল এর বৈঠক।...

চাকরি করতেন শিল্পমন্ত্রী, বাংলায় ব্যবস্থা গুটাচ্ছে সেই সংস্থা

খাস খবর ডেস্ক: ফের ঝাঁপ বন্ধ করতে চলেছে রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা। স্টিল অথরিটি অফ ইন্ডিয়া ওরফে সেল-র দফতর রাজ্য থেকে সরিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ।...

“দিদি বললেই সই হবে”, প্রিয় ক্লাবের জন্য মুখ্যমন্ত্রীর দ্বারস্থ ইস্টবেঙ্গল সমর্থকরা

কলকাতা: ধৈর্য্যের বাধ ভেঙে যাচ্ছে ইস্টবেঙ্গল সমর্থকদের। প্রিয় লাল-হলুদ ক্লাবকে তারা আর এত জর্জ্রিত অবস্থায় দেখতে পারছে না। রে। ফুটবলারদের বকেয়া বেতন মামলায় ফিফার...

খবর এই মুহূর্তে

কেন্দ্রের শীর্ষ নেতাদের ডাকে ফের দিল্লি যাচ্ছেন শুভেন্দু, শুরু নতুন জল্পনা

কলকাতা: কয়েকদিন আগেই কেন্দ্রের শীর্ষ নেতাদের ডাকে দিল্লি গিয়েছেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। তার এক মাস কাটেনি এখনও তার মধ্যেই আবারও জরুরি ডাক...

আস্থা হারিয়ে তৃণমূলে, জেলায় ফের শক্তিক্ষয় গেরুয়া শিবিরের

বাঁকুড়া: ফের শক্তিক্ষয় বিজেপির। এবার পাত্রসায়রের ব্লকে গেরুয়া শিবিরে ভাঙন ধরিয়ে শক্তিশালী ঘাস ফুল শিবির। বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার পর থেকে রাজ্য জুড়ে বিজেপিতে...

ফিস্টের খাওয়া নিয়ে গণ্ডগোল, শুরু বোমাবাজি

হাওড়া: বর্ষণমুখর রাতে কয়েকজন বন্ধু মিলে শান্তিতে ফিস্ট করে খাওয়া দাওয়ার প্ল্যান করে। কিন্তু এই ফিস্ট ই যে কাল হয়ে উঠবে কে জানতো। সামান্য...

বাড়ছে করোনা, ব্রিটেনে টিকার বুস্টার ডোজের আবেদন চিকিৎসকদের

খাসখবর ডেস্ক: প্রায় দুই বছর ধরে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে এই প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস। সারা বিশ্ব এখন এই মারণ ভাইরাসের তাণ্ডব কমলেও বেশ কয়েকটি দেশ বিপর্যস্ত...