বিজেপি প্রার্থীর বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগ তুলে পোস্টার

এই পোস্টার ঘিরে তৈরি হয়েছে রাজনৈতিক বিতর্ক। যদিও কে বা কারা ওই পোস্টারগুলি লাগাল তা স্পষ্ট নয়।

0
302

বাঁকুড়া: ফের পোস্টার বিতর্ক বাঁকুড়ায়। সম্প্রতি বিষ্ণুপুর বিধানসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী তন্ময় ঘোষের নামে এলাকায় পোস্টার পড়ে। এবার বাঁকুড়া বিধানসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী নীলাদ্রি শেখর দানার নামেও পোস্টার পড়ল।

শহরের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের লালবাজারের একাধিক দেওয়াল, তৃণমূলের ওয়ার্ড কার্যালয়ে লাগানো ‘নীলাদ্রি শেখর দানার চার্জশিট’ শিরোনামে ঝকঝকে ছাপা ও রঙিন পোস্টারে নীলাদ্রিবাবুর ব্যঙ্গচিত্র সহ লেখা হয়েছে, ‘দাঙ্গা ও বেআইনী সমাবেশে জড়িত, অস্ত্রশস্ত্র ব্যবহার করে স্বেচ্ছায় আঘাত এবং হত্যার চেষ্টা এক ব্যক্তিকে এবং নারীর শ্লীলতাহানির উদ্দেশ্যে নারীকে আক্রমণ বা জোর করার জন্য ফৌজদারি মামলা’।

পোস্টারের একেবারে শেষে ‘অপরাধীদের জন্য ভোট করবেন না’ লেখা রয়েছে। এই পোস্টার ঘিরে তৈরি হয়েছে রাজনৈতিক বিতর্ক। যদিও কে বা কারা ওই পোস্টারগুলি লাগাল তা স্পষ্ট নয়।

আরও পড়ুন: মমতাকে হারাতে বিশেষ পদক্ষেপ শাহের

নীলাদ্রি শেখর দানা এই ঘটনায় শাসক দলের দিকে অভিযোগের আঙুল তুলেছেন। তিনি বলেন, কোনওভাবেই আমার সঙ্গে না পেরে রাতের অন্ধকারে এই সব পোস্টার লাগাচ্ছে। মানুষ এর যোগ্য জবাব দেবে। ক্ষমতা থাকলে রাতের অন্ধকারে নয়, দিনের আলোতে এই সব কাজ করুক বলেও তিনি হুঁশিয়ারি দেন।

তৃণমূলের ৪ নম্বর ওয়ার্ড সভাপতি উত্তম পাল পুরো বিষয়টিকে বিজেপির গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের ফল বলে দাবি করেছেন। তিনি বলেন, ওনার নামে কী কী মামলা আছে আমরা কি করে জানব? গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের কারণেই এইসব প্রকাশ পাচ্ছে বলে তিনি দাবি করেন।

গত সপ্তাহেই বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুরে কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থীর নামে এলাকায় পোস্টার পড়ে। ‘তন্ময় ঘোষের চার্জশিট’ শিরোনামে বিতর্কিত পোস্টার ঘিরে তীব্র চাঞ্চল্য ছড়ায় শহরজুড়ে। সম্প্রতি বিষ্ণুপুর পুরসভার প্রশাসক মণ্ডলীর সদস্য তন্ময় ঘোষ শাসক দল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেন। ঠিক তারপরেই ওই কেন্দ্রে তাঁকে প্রার্থী করেছিল বিজেপি।

আরও পড়ুন: বাতিল হল তিন প্রার্থীর মনোনয়ন, নির্বাচন কমিশনে জোর ধাক্কা খেল বিজেপি

শহরের হাইস্কুল মোড়, কলেজ রোড সহ বিভিন্ন এলাকায় লাগানো ঝকঝকে রঙিন ওই পোস্টারে বিজেপি প্রার্থীর ব্যঙ্গচিত্র সহ একটি স্কুলের সামনে বেআইনি মদের দোকান তৈরি, বেআইনিভাবে চাল কেনা-বেচার সঙ্গে জড়িত থাকা সহ পুরসভার বিভিন্ন দপ্তরে দুর্নীতির অভিযোগ তোলার পাশাপাশি সব শেষে ‘অপরাধীদের জন্য ভোট করবেন না’ বলেও লেখা ছিল।

পোস্টার লাগানোর পিছনে সরাসরি তৃণমূলকে দায়ী করেছিলেন বিষ্ণুপুর বিধানসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী তন্ময় ঘোষ। তিনি বলেছিলেন, এগুলো তৃণমূলেরই কাজ। বিজেপি সাংগঠনিক দল, গোষ্ঠীদ্বন্দের কোনও কারণ নেই।

একই সঙ্গে পুরো বিষয়টিকে তিনি ‘গুরুত্ব’ দিতে নারাজ বলে দাবি করেছিলেন তন্ময়বাবু। তিনি বলেছিলেন, বিষ্ণুপুরের মানুষ জানে তন্ময় ঘোষ ওরফে বুম্বা কতটা স্বচ্ছ ভাবমূর্তির মানুষ। তিনি সবসময় মানুষের সঙ্গে, মানুষের পাশে থাকেন ও কাউন্সিলর হিসেবে তাঁর কোনও দুর্নীতির রেকর্ড নেই বলেও দাবি করেন তিনি।

আরও পড়ুন: খেলতে গিয়ে বর্ধমানে বোমা ফেটে মৃত ১ শিশু, আহত আরও এক

এদিকে বিজেপির অভিযোগ সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছিল তৃণমূল। দলের টাউন সভাপতি ডাঃ জয়মাল্য ঘর বলেছিলেন, আমাদের হাতে এতো সময় নেই। দিদির জনহিতকর প্রকল্প নিয়ে গ্রামে-শহরে প্রচার চালাচ্ছি। একই সঙ্গে আগামী পাঁচ বছরের জন্য দিদিকে মুখ্যমন্ত্রী করতে আমরা রাস্তায় রয়েছি।

ওই পোস্টার কাণ্ডে তাদের দল কোনভাবেই জড়িত নয় দাবি করেছিলেন জয়মাল্যবাবু। তিনি আরও বলেছিলেন, ওদের আদি বনাম নব্যের লড়াই চলছে। এই ঘটনা তারই ফলশ্রুতিতে হতে পারে।