মণ্ডপ পরিদর্শনে পুলিশ কমিশনার

0
15
police

হাওড়াঃ হাওড়ার পুজো মণ্ডপ পরিদর্শন (howrah pandal visit) পুলিশ কমিশনারের। এদিন হাওড়ার নাম করা বেশ কিছু পুজো মণ্ডপ পরিদর্শন করেন পুলিশকর্তা (police)। হাওড়ার পুলিশ কমিশনার প্রবীণ কুমার ত্রিপাঠীর সঙ্গে ছিলেন পুলিশের অন্যান্য উচ্চ পদস্থ কর্তা।

আগামীকাল মহালয়া। পুজোর ঢাকে কাঠি পড়ে গেছে। পাড়ায় পাড়ায় শুরু হয়েছে দুর্গা পুজোর তোড়জোড়। চলছে মণ্ডপ বাধার শেষ প্রস্তুতি। শুরু হয়েছে থিম পুজোর হাড্ডাহাড্ডি লড়াই। ২ বছর করোনা শেষে এবার দুর্গা পুজোর তোড়জোড় অনেকটাই বেশি । শনিবার সকাল থেকে হাওড়া পুলিশ কমিশনারেটের তরফে মণ্ডপ পরিদর্শন শুরু হয়। নিয়ম মেনে পুজো হচ্ছে কিনা দেখতে মণ্ডপ পরিদর্শনে বেরোন খোদ হাওড়া পুলিশ কমিশনার। কমিশনার নিজে কথা বলেন পুজো উদ্যোক্তাদের সঙ্গে। জানা গেছে, হাওড়া, শিবপুর, চ্যাটার্জিহাট, ব্যাঁটরা, গোলাবাড়ি, মালিপাঁচঘড়া, বালি প্রভৃতি থানা এলাকার প্রায় ১৪টি বড়ো পুজো মণ্ডপ এদিন পুলিশ কমিশনার পরিদর্শন করেন। মূলতঃ সেফটি প্রোটোকল মানার জন্য কি কি ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে, মানুষের প্রবেশ এবং বাহিরের রাস্তা কোথায় রাখা হচ্ছে ইত্যাদি ইত্যাদি বিষয়গুলি খতিয়ে দেখা হয়। মণ্ডপের সিসিটিভি ব্যবস্থা, অগ্নিনির্বাপক ব্যবস্থা খতিয়ে দেখেন পুলিশ কমিশনার।

- Advertisement -

পুজোয় প্রতিমা দর্শনের পাশাপাশি যান চলাচল যাতে নিয়িন্ত্রণে রাখা যায়, জ্যাম এড়ানো যায় সেটাই চ্যালেঞ্জ। জানালেন পুলিশ (police) কমিশনার। প্রসঙ্গত আগামীকাল মহালয়া। অবসান পিতৃপক্ষের। ওই দিন পিতৃপুরুষদের উদ্দেশে জল দান করতে ঘাটে ঘাটে জড়ো হবে হাজার হাজার মানুষ। রাজ্যের বিভিন্ন জেলার পাশাপাশি কলকাতার বিভিন্ন ঘাটে মহালয়ার তোড়জোড় শুরু হয়ে গেছে। পূর্বপুরুষদের শ্রদ্ধা জানাতে তিল,জব,ফুল নিয়ে মহানন্দা নদীতে তর্পণ করবেন বহু মানুষ। এদিন বেহাল রামকৃষ্ণ মিশন ঘাট পরিষ্কারে উদ্যোগ নিল ইংরেজবাজার পুরসভা। ঘাটের অবস্থা ভালো নয়। চারিদিকে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে জঞ্জাল। ঘাটে নেমে কচুরিপানা ও অন্যান্য জঞ্জাল পরিষ্কারের কাজ শুরু করা হল। পুণ্যার্থীদের সুবিধার্থে মাটি ফেলা হল ঘাটে। মহালয়ার শেষে দেবী দুর্গার আরাধনায় মেতে উঠবেন আপামর বাঙালি। মণ্ডপে মণ্ডপে শুরু হবে ঠাকুর দেখার ঢল।