Nandigram: রণক্ষেত্র নন্দীগ্রাম, আক্রান্ত সরকারি আধিকারিক, কাঠগড়ায় বিজেপি

0
247

নন্দীগ্রাম: ফের রণক্ষেত্র শুভেন্দুর খাসতালুক। বিজেপির বিক্ষোভ ঘিরে ধুন্ধুমার নন্দীগ্রাম। কৃষি দফতরে তুলকালাম। আক্রান্ত কর্তব্যরত কৃষি সম্প্রসারণ আধিকারিক। চলে বেধড়ক লাথি, ঘুসি। মারধোরের অভিযোগ বিজেপি মহিলা কর্মীর বিরুদ্ধে। শুক্রবার সকালে ঘটনাটি ঘটেছে নন্দীগ্রামের হরিপুর পাঁচ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায়।

বিজেপির ডেপুটেশন ঘিরে রণক্ষেত্র এলাকা। শুক্রবার হরিপুর ৫নং অঞ্চল থেকে হরিপুর কিষান মান্ডিতে ডেপুটেশন দিতে আসেন কয়েকশো মানুষ। তাঁদের দাবি, কৃষি দফতর থেকে যে সহায়তা গুলো পাওয়া যায় অন্যান্য অঞ্চল সেগুলো পেলেও হরিপুর অঞ্চলের মানুষ সেই সুযোগ থেকে বঞ্চিত সব সময়ের জন্য। সে কারণেই আজ কিষান মান্ডিতে এসে বিক্ষোভ দেখান বিজেপি কর্মীরা।

হরিপুর বাস স্ট্যান্ড থেকে যখন হরিপুর কিষান মান্ডিতে মিছিল প্রবেশ করে, সেই সময় কিষাণ মান্ডির এক কর্মচারী অফিস থেকে বেরিয়ে চলে যান। তখনই বিক্ষোভকারীরা ওই অফিসারকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন। চলে লাথি, ঘুসি মারা হয়। চরম হেনস্তার মধ্যে পড়তে হয় তাঁকে।

নন্দীগ্রামে কিষান মাণ্ডিতে কৃষি দফতরে সরকারি আধিকারিকের উপর হামলার ঘটনায় রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী ঘনিষ্ঠ বিজেপি নেতা মেঘনাদ পাল সহ ৬ জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

জানা গিয়েছে, ধৃত মেঘনাথ পাল এলাকার পঞ্চায়েত সদস্য। শুভেন্দু অধিকারী বিজেপিতে যোগদান করার পরই মেঘনাথ পাল বিজেপিতে যোগদান করেন। বাকি অভিযুক্তরা হল আশীষ ভূঁইয়া, তিনি হরিপুর অঞ্চলে তৃণমূলের উপপ্রধান, প্রধান সুনীল মাইতি, চৈতালি মণ্ডল, মমতা ভূঁইয়া, মাধুরী জানা। এরা প্রত্যেকেই শুভেন্দু অধিকারী ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত।