স্টিলের থালায় ভাত-তরকারি, পাত পেড়ে খেলেন মমতা

0
42
mamata banerjee

উত্তর ২৪ পরগনা: মঙ্গলবারই হিঙ্গলগঞ্জ সফরের সময় থেকেই শোনা যায় মুখ্যমন্ত্রী ইছামতী ঘুরে দেখবেন। এবার কোনও কর্মসূচির কথা আগে থেকে না জানিয়েই সোজা বুধবার ইছামতী ভ্রমণে বেরিয়ে পড়লেন মমতা। দুপুর ১টা নাগাদ লঞ্চে উঠে ইছামতী হয়ে পৌঁছন ডাসা নদীতে। তারপর হাসনাবাদের খাঁপুকুর এলাকায় তিনি লঞ্চ থেকে নামেন। টাকির খাঁপুকুর গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার গ্রামের স্থানীয়দের সঙ্গে বসেই মধ্যাহ্নভোজন সারেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়(Mamata Banerjee)। স্টিলের থালায় ভাত, তরকারি খাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী আরা পাশে বসে রয়েছেন গ্রামবাসীরা।

আরও পড়ুন মাথার খুলিতে শট মারছেন মা কালী ভাইরাল সেই ছবি, বিতর্কের মুখে লেখক

- Advertisement -

বুধবার একদিকে চলছে স্কুল। ক্লাসরুমে ছাত্রছাত্রীদের চলছে পড়াশোনার পর্ব। হঠাৎ খবর এল মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়(Mamata Banerjee) আসছেন। সঙ্গে সঙ্গে হইচই পড়ে যায়। স্কুলের গেট পেরিয়ে ঢুকে পড়েন মুখ্যমন্ত্রী। সেখানেই স্কুলের পড়ুয়াদের সঙ্গে কথা বলতে এগিয়ে যান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ছাত্রছাত্রীদের হাতে পোশাক তুলে দিয়ে তাদের নামও জানতে চান মুখ্যমন্ত্রী।

প্রথমে প্রাথমিক স্কুলে গিয়ে তিনি বাচ্চাদের নতুন পোশাক দেন। তারপর প্রগতি সংঘের মাথে এসে মহিলাদের হাতে শাড়ি, চাদর তুলে দেন মমতা। সেখানেই গ্রামের স্থানীয়দের মাঝে বসে সেরে ফেলেন মধ্যাহ্নভোজ। স্টিলের থালাতেই রয়েছে ভাত এবং তরকারি। গ্রামবাসীদের মাঝখানে বসে তিনি খাবার খাচ্ছেন। মুখ্যমন্ত্রীর এহেন রূপ দেখে অনেকেই হা করে তাকিয়ে রয়েছেন তাঁর দিকে। খুব সাধারণ পোশাকে মুখ্যমন্ত্রীর দিকে তাকিয়ে রয়েছেন স্থানীয়রা। তবে তাতেও রাজনৈতিক মহলে চর্চা কমছে না। পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগেই মুখ্যমন্ত্রীর এহেন রূপ ভোট বাক্স ভর্তি করার জন্যই তা নিয়ে জোর জল্পনা শুরু করেছে বিরোধী মহল। এদিকে মঙ্গলবার হিঙ্গলগঞ্জের মঞ্চে রণচণ্ডী রূপে মমতা বুঝিয়ে দিয়েছেন তিনি সাধারণ মানুষের জন্য শীতবস্ত্র পাঠিয়েছেন কিন্তু তা আসেনি। তাতে তিনি রীতিমতো ক্ষুব্ধ। ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি আসলে নিজেদের রাজনৈতিক দীনতা ঢাকছিলেন বলেও মনে করেছেন বিরোধীরা।