পঞ্চায়েত ভোটে তৃণমূলের ‘মাস্টারস্ট্রোক’ প্রকাশ্যে আনলেন কুণাল

0
117
mohun-bagans-vice-president-kunal-ghosh-gives-more-credits-to-east-bengal club

নিজস্ব সংবাদদাতা, নন্দীগ্রাম: পঞ্চায়েত ভোটকে পাখির চোখ করে রাজনৈতিক দলগুলি এখন ময়দানে নেমে পড়েছে৷ প্রতিটি ভোটে বরাবরই উত্তপ্ত জায়গা নন্দীগ্রাম৷ তাই পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে শুভেন্দুর গড় হিসেবে পরিচিত নন্দীগ্রাম তথা পূর্ব মেদিনীপুরে বিশেষ দায়িত্ব দেওয়া তৃণমূলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষকে (Kunal Ghosh)৷

রবিবার তিনি একটি সভা করেন৷ সেখানে তৃণমূলের পঞ্চায়েত ভোটের মাস্টারস্ট্রোকের বিষয়ে তিনি মুখ খোলেন৷ যা নিয়ে তোলপাড় রাজ্য-রাজনীতি৷ তিনি নন্দীগ্রামবাসীকে পরামর্শ দেন ও আশ্বস্ত করে বলেন, “একদম ভয় পাবেন না। তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যে আইনজীবীদের নিয়ে সেল তৈরি করেছেন। প্রয়োজনের সেই সেলের সাহায্য নিন। দরকার হলে সেই সেলকে নন্দীগ্রামে এনে ঘুরিয়ে নিয়ে যাব। আর আপনাদের বিরুদ্ধে এনআইএ দিয়ে মিথ্যা মামলা করলে, আপনারাও পাল্টা মামলা করুন।’’

- Advertisement -

কুণাল ঘোষ বিরোধী দলনেতাকে কটাক্ষ করে বলেন, ‘‘আপনাদের পঞ্চায়েত ভোটের আগে বিজেপি ও শুভেন্দু বাহিনী নানা প্ররোচনা দেবে। মারধর করতেও পারে। সেক্ষেত্রে প্রশাসনকে খবর দেওয়ার পাশাপাশি আমাদেরকেও খবর দিন। ছয় ঘন্টার মধ্যে হামলার স্থানে তৃণমূলের রাজ্য নেতৃত্ব পৌঁছে যাবে। তারপর শুভেন্দু অধিকারীদের গঙ্গায় ছুঁড়ে ফেলে দিয়ে আসব।”

সেই সঙ্গে পুলিশ বাহিনীকেও এদিন কুণাল ঘোষ অনুরোধ করে বলেন, “এনআইএ দিয়ে বিজেপি ও শুভেন্দু বাহিনী যদি দুইজন তৃণমূল কংগ্রেসের বাড়িতে গিয়ে অশান্তি করে, তবে আপনারা চারজন বিজেপি দুষ্কৃতির বাড়িতে যান। ওরা তৃণমূল কংগ্রেসের দুজন নেতাকে গ্রেফতার করলে, আপনারা বিজেপির চারজন দুষ্কৃতিকে গ্রেফতার করুন। তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা কর্মী সমর্থকদের মিথ্যা মামলা দিয়ে গ্রেফতার করা, হেনস্থা করা হবে, আর শুভেন্দুর চামচারা বাড়িতে আরামে ঘুমিয়ে থাকবে, এজিনিস নন্দীগ্রামে অনেক আগে অতীত হয়ে গিয়েছে।”

নন্দীগ্রামবাসীদের উদ্দেশ্যে তৃণমূল নেতার বক্তব্য, “বিজেপিকে বিশ্বাস করে হিন্দু-মুসলিমের ভাগাভাগি করবেন না। ধর্মের ভিত্তিতে নয়, উন্নয়নের ভিত্তিতে ভোট দিন। নন্দীগ্রামকে যে হার্মাদরা রক্তাক্ত করেছিল, তারাই এখন শুভেন্দুর সঙ্গে ঘুরছে। আর হালি বিজেপি শুভেন্দু প্রতিটি সভায় বারবার বলছে, বিজেপি নাকি হিন্দুদের দল। সামনের পঞ্চায়েত নির্বাচনে তাই বিশেষত হিন্দু পাড়ায় মা বোনেরা সবাই মিলে বিজেপিকে হারিয়ে মুখে ভালো করে ঝামা ঘষে দিন।”