সাবান দিয়ে তৈরি দুর্গা, শিল্পীর তুলির টানে চোখ, নাক একেবারে নিখুঁত

0
27
soap made durga

জলপাইগুড়িঃ সাবান দিয়ে আস্ত একটা দুর্গা প্রতিমা (durga idol)। শুধু দুর্গা নয়, দেবী দুর্গার সংসারে রয়েছে লক্ষ্মী, সরস্বতী, গণেশ, কার্তিক সকলেই। সাবানের দুর্গা বানিয়ে তাক লাগিয়েছেন জলপাইগুড়ির যুবক কুণাল।

সিন্থল সাবান কেটে মাত্র ১৫ দিনের মধ্যে গড়ে তুলেছেন দুর্গা। দেবী দুর্গার চোখ, নাক, ঠোঁট এক্কেবারে নিখুঁত। কী ভাবে এত নিখুঁত করে এঁকে দেবী দুর্গার মূর্তি গড়লেন? কুণাল জানালেন দেবী দুর্গার এই মূর্তি গড়তে তিনি ব্যবহার করেছেন লাল, কালো জেল পেন। ছোট থেকেই দেবী দুর্গার মূর্তি গড়ার প্রতি তাঁর দারুণ আকর্ষণ। মনের ভালোবাসা থেকে তিনি এই কাজ করে থাকেন। দিনরাত এক করে করেন কাজ। তাঁর এই কাজে কোন ফাঁকি নেই।

- Advertisement -

দেবী দুর্গার মূর্তি (durga idol) গড়তে কেন বা তিনি সাবানটাকে বেছে নিলেন? এই প্রশ্নের উত্তরে কুণাল জানালেন, আগেও নানানরকম ভাবে সাজিয়েছেন দেবী দুর্গার মূর্তি। এবার আরেকটু অন্যপথে এগিয়ে সাবান দিয়ে দুর্গা মূর্তি গড়ার ভাবনা ভেবেছেন কুণাল। চারিদিকে থিম পুজোর ভিড়। প্যান্ডেলের সঙ্গে সঙ্গে দেবী দুর্গার মূর্তিতে অভিনবত্ব আনছেন বহু দুর্গাপুজো কমিটি। গম, তুষ দিয়ে তৈরি হচ্ছে দেবী দুর্গার মূর্তি। এই ধরণের উদ্যোগ নেওয়ার পেছনে আরও একটি কারণ হল ইকো ফ্রেন্ডলি হওয়ার ভাবনা। যাতে মানুষকে পরিবেশের প্রতি আরও সচেতন করা যায়। প্রসঙ্গত সম্প্রতি বাঁকুড়ার (bankura) শিমুলবেড়িয়া গ্রামের কর্মকার পাড়ায় দিনরাত ব্যস্ততার একটি ছবি উঠে এসেছিল। দিন-রাত এক করে দুর্গা প্রতিমা (durga idol) গড়ে চলেছেন শিল্পিরা। এই গ্রামের কাঠের তৈরি শিল্প কর্মের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। রাজ্যের পাশাপাশি অসম ও ত্রিপুরা থেকেও আসে বরাত। মণ্ডপ সজ্জার পাশাপাশি কাঠ খোদাই করে তৈরি হয় ঘর সাজানোর অপরুপ সামগ্রী। ফলে বছরভর ব্যাপক চাহিদা থাকে কাঠের তৈরি সামগ্রীর। যা পুজোর মরশুমে কয়েক গুণ বেড়ে যায়। নিখুঁত হাতের কাজে ফুটে ওঠে অসাধারণ শিল্প কর্ম। তবে সেভাবে মেলেনা সরকারি সাহায্য। জীবন ও জীবিকার স্বার্থে গত ১৫ বছর ধরে কাঠ খোদাই করে শিল্প কর্মের নেশায় মেতে আছেন মলয় কর্মকার। তিনি বলেন ৩০০ টাকা থেকে শুরু দুর্গা প্রতিমার দাম। মিলবে ৩, ৪ হাজার টাকা পর্যন্ত।