২১৪ বছরের পুরনো বনেদী বাড়ির পুজোর দায়িত্বে মহিলারাই

0
17

জলপাইগুড়িঃ এক এক বছর করে ২১৪ টি বছর পার হয়ে গেছে। সাবেকি আমল থেকে জলপাইগুড়ির (jalpaiguri) নিয়োগী বাড়িতে পূজিত হয়ে আসছেন দেবী দুর্গা। বিদায় বেলায় দর্পণে বিসর্জন দেওয়া হল দেবী দুর্গাকে।

আরও পড়ুন : মুখ্যমন্ত্রী আমাকে দলের নেতৃত্ব দিতে বলেছিলেন, আমি রাজি হইনি: পিকে

- Advertisement -

বনেদী বাড়ির পুজো (bonedi barir pujo) বলে কথা। পুজোর রীতিনীতি, রেওয়াজ প্রচুর। এই বাড়ির দুর্গা পুজোয় দুটি বিশেষত্ব রয়েছে। প্রথমটি হল জলপাইগুড়ির নিয়োগী বাড়ির দুর্গা পুজোয় পুজো উপলক্ষে প্রকাশিত হয় ‘জ্যোতি’ শারদ গ্রন্থ। আর দ্বিতীয়টি হল পুজোর যাবতীয় দায়- দায়িত্ব পালন করেন মহিলারা।  নানা ব্যস্ততা কাটিয়ে বাড়ির পুজোয় হাজির হন বাড়ির সকল সদস্য।

আরও পড়ুন : এলপিজি সিলিন্ডার বিস্ফোরণে বাড়িতে ধস, মৃত ১ শিশু ও ২ মহিলা, দুর্ঘটনাস্থলে যাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী

বছরের এই কটা দিন পুজোর গন্ধে চারিদিক ম ম করে ওঠে। বাড়ি ভর্তি বনেদী বাড়ির সদস্য। আমন্ত্রিত থাকেন বাইরের অনেক অতিথি। বনেদী বাড়ির পুজো (bonedi barir pujo) দেখতে হাজির থাকেন স্থানীয়রা। দুরদুরান্ত থেকে মানুষজন আসেন এই পুজো দেখতে। প্রসঙ্গত চলতি বছরের পুজোয় ষষ্ঠী থেকে শুরু হয়েছিল বৃষ্টি। একনাগারে না চললেও বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি ভয় ধরিয়ে ছিল দর্শকদের মনে। ‘অসুর’ রূপি বৃষ্টি হার মানাতে পারিনি মণ্ডপমুখী দর্শকদের। সপ্তমীর সকালে দক্ষিণ কলকাতার মণ্ডপে মণ্ডপে ভিড় চমকে দিয়েছিল অনেককে। সময় যত গড়িয়েছে জন সমুদ্রের আকার নিয়েছে মহানগরীর রাস্তা। ২ বছর লকডাউনে নানা বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছিল। তাই চলতি বছরে শহর থেকে মহানগর, গ্রাম থেকে মফস্বলে মণ্ডপে মণ্ডপে ভিড় ছিল চোখে পড়ার মত।