অমানবিক: যক্ষ্মারোগে আক্রান্ত ছাত্রকে পরীক্ষায় বসতে দিলেন না অধ্যক্ষ

0
21

সুদেষ্ণা মণ্ডল, কুলপি: যক্ষ্মা রোগে আক্রান্ত হওয়ায় এক ছাত্রকে পরীক্ষায় বসতে না দেওয়ার অভিযোগ উঠল কলেজের অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে৷ কুলপির সরকারি আইটিআই কলেজের (Govt ITI College Kulpi) ঘটনা৷ বিষয়টি প্রকাশ্যে আসতেই কলেজ কর্তৃপক্ষের ভূমিকা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন৷

কারণ, একদিকে যখন যক্ষ্মা রোগীদের সাহায্যার্থে রাজ্য সরকার প্রকল্প ঘোষণা করে তাদের পাশে দাঁড়াচ্ছে ঠিক তখনই কুলপির এই ঘটনা যেন ১৮০ ডিগ্রি বিপরীত মেরুর৷ স্বভাবতই, অধ্যক্ষর এমন অমানবিক আচরণের প্রতিবাদে সরব হয়েছেন স্থানীয়রাও৷ বস্তুত, ঘটনার প্রতিবাদে এদিন কলেজের সামনে ধর্নাতেও বসে পড়ে সংশ্লিষ্ট ছাত্র৷

- Advertisement -

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, রামনগর থানার মহেশ্বরা এলাকার বাসিন্দা রাজীব শীল। এসি ও রেফ্রিজারেটরের কোর্স নিয়ে কুলপির গভঃ আই টি আই কলেজে ভর্তি হয়। গত ৬ মাস আগে তার যক্ষ্মারোগ ধরা পড়ে। এরপর থেকেই চিকিৎসা চলছে তার। কিন্তু বিপত্তি বাধে যক্ষ্মা রোগে আক্রান্ত হওয়ায় কলেজ থেকে তার নাম বাদ দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ। নিজের নাম বাদ যাওয়াতে কলেজ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করে ওই ছাত্র৷ তাঁর কথায়, ‘‘ন্যূনতম সহযোগিতাটুকুও পাইনি কলেজ থেকে৷ এমনকি কলেজে ঢুকতেও দেওয়া হয়নি। কিন্তু আজ কলেজে ফাস্ট সেমিষ্টারের পরীক্ষা ছিল৷ তাই প্রস্তুতি নিয়ে নির্দিষ্ট সময়ে পরীক্ষা দিতে কলেজে হাজির হই৷ কিন্তু অধ্যক্ষ বাধা দেন৷ ফলে কলেজের ঢুকতে পারিনি৷ পরীক্ষাও দেওয়া হল না৷’’

কেন এমন অমানবিক সিদ্ধান্ত? কোনও প্রতিক্রিয়া দিতে রাজি হননি কলেজের (Govt ITI College Kulpi) অধ্যক্ষ সৌরভ কুন্ডু৷ অন্যদিকে পরীক্ষায় বসতে না পেরে কান্নায় ভেঙে পড়ে সংশ্লিষ্ট ছাত্রটি বলেন, ‘‘উনি একজন শিক্ষক হতে পারেন৷ কিন্তু এভাবে তো কারও জীবন নষ্ট করে দেওয়ার অধিকার নেই৷ আমি এর সুবিচার চাই৷’’

 আরও পড়ুন: মানব-ত্রুটির কারণেই শিয়ালদহে দুই ট্রেনের ধাক্কা, চালকের ‘মোটিভ’ খতিয়ে দেখছে রেল

https://play.google.com/store/apps/details?id=app.aartsspl.khaskhobor