বামেদের ধর্মঘটে চালকরা হেলমেট পড়ে সরকারি বাস চালাল মালদহে

0
196

নিজস্ব সংবাদদাতা, মালদহ: ধর্মঘট সফল করতে সকাল থেকেই রাস্তায় নামল সিপিআইএম এবং কংগ্রেসের ট্রেড ইউনিয়নের কর্মীরা। মালদহ শহরের বিভিন্ন বাজার এবং ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক ধরে বনধের সমর্থনে মিছিলে অংশ নেন তাঁরা।

পাশাপাশি রথবাড়ি এলাকায় ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কে বেশ কিছুক্ষণ বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন তাঁরা। আটকে দেওয়া হয় মালদহগামী এবং রায়গঞ্জগামী একাধিক সরকারি বাস এবং লরি। যদিও পরে ইংরেজবাজার থানার বিশাল পুলিশবাহিনীর হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়।

- Advertisement -

অন্যদিকে চাঁচোল মহকুমা, মানিকচক, গাজল, কালিয়াচক, হবিবপুর সহ বিভিন্ন জায়গায় এই বন্ধের প্রভাব লক্ষ্য করা যায়। বন সমর্থকরা জায়গায় জায়গায় ব্যারিকেড করে দীর্ঘক্ষণ গাড়ি আটকে রাখে। গাজলের ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক ও দীর্ঘক্ষণ ধরে বন্ধ করে রাখে সমর্থকেরা। পরে পুলিশি হস্তক্ষেপে তা উঠে যায়।

এদিন ধর্মঘটের মিশ্র প্রতিক্রিয়া লক্ষ্য করা যায় গোটা মালদহ জেলা জুড়েই। শহরের গৌড় কন্যা বাস টার্মিনাসে সকাল থেকেই দাঁড়িয়েছিল সমস্ত বেসরকারি বাস। যাত্রীদের দেখাও মেলেনি। তবে ধর্মঘটকে উপেক্ষা করে চলে সরকারি বাস। যদিও সরকারি বাসের ড্রাইভারদের লক্ষ্য করা যায় হেলমেট পড়ে বাস চালাতে।

‌বেসরকারি বাস বন্ধ থাকার কারণে যাত্রীরা ভিড় জমিয়েছিলেন সরকারি বাসে ওঠার জন্য। যাত্রীরা রাস্তায় বেরিয়ে সমস্যায় পড়েন তারা। উল্লেখ্য, বাম এবং কংগ্রেস সমর্থিত ট্রেড ইউনিয়নগুলোর ডাকা ২৪ ঘণ্টার ধর্মঘট। আয়করহীন প্রতিটি পরিবারকে সাড়ে সাত হাজার টাকার নগদ প্রদান, সরকারি কর্মীদের মহার্ঘ্য বকেয়া ভাতা প্রদান সহ শ্রমিক স্বার্থে একাধিক দাবিতে এই ধর্মঘট গোটা দেশজুড়ে।

বন্ধের প্রভাব সকাল থেকে মিশ্র প্রভাব লক্ষ্য করা গেল মালদহে। সবজি বাজার খোলা থাকলেও বন্ধ ছিল সমস্ত বাজার। শ্রমিক নেতা কৌশিক মিশ্র জানান, জনস্বার্থ বিভিন্ন দাবিকে সামনে রেখে মানুষের স্বার্থেই তাদের এই ধর্মঘট। মানুষ এই ধর্মঘটে সাড়া দিয়েছে।