টাকা নেওয়ার অভিযোগে গ্রেফতার ভুয়ো মানবাধিকার কমিশনের কর্মী

0
126

নিজস্ব সংবাদদাতা, বাঁকুড়া: প্রথমে নিজেকে মানবাধিকার কমিশনের কর্মী পরিচয় দিয়েছে৷ এরপর সিবিআই তদন্তের ভয় দেখিয়ে এক পেট্রোল পাম্প মালিকের কাছ থেকে টাকা আদায়ের অভিযোগ ওঠে এক যুবককের বিরুদ্ধে৷ ওই যুবককে গ্রেফতার করে পুলিশ৷ ধৃতের নাম ইসরায়েল মিদ্যা। বাঁকুড়ার জয়পুর থানা এলাকার ঘটনা।

সূত্রের খবর, জয়পুরেরই রাউৎখণ্ড গ্রাম পঞ্চায়েতের জামদিগরি গ্রামের বাসিন্দা ইসরায়েল মিদ্যা ওই এলাকার গেলিয়া পেট্রোল পাম্পের মালিক সমীর শিকদারের কাছে নিজেকে মানবাধিকার কমিশনের কর্মী হিসেবে দাবি করে। এমনকি সিবিআই তদন্তের ভয় দেখিয়ে ১ লক্ষ টাকা দাবি করে। তিনি ভয়ে প্রাথমিক অবস্থায় ভয়ে ৪০ হাজার টাকা দেন। পরে আরও টাকার জন্য ফোন এলে বিষয়টি পুলিশকে জানান ওই পেট্রোল পাম্প মালিক।

এরপর টাকার টোপ দিয়ে ডেকে এনে পুলিশ ওই যুবককে গ্রেফতার করে। সঙ্গে পুলিশের পক্ষ থেকে ‘এস.এস হিউম্যান রাইটস্ ফাউণ্ডেশান’ লেখা বাইকটিও আটক করা হয়। সোমবার ধৃতকে বিষ্ণুপুর মহকুমা আদালতে তোলে পুলিশ।

পেট্রল পাম্প মালিক সমীর শিকদার জানান, গত ৪ এপ্রিল পাম্পে পর্যাপ্ত পেট্রোল ছিল না। এই বিষয়ে নোটিশ দেওয়া থাকলেও কোন কারণে তা পড়ে যায়। ওই যুবক পাম্পে এসে অশান্তি বাধানোর চেষ্টা করলেও অনেকে জড়ো হয়ে যাওয়ায় সে পালিয়ে যায়।

তিনি বলেন, ‘‘সেদিনের ওই ঘটনার পর ফোন করে আমাকে ডেকে নিজেকে মানবাধিকার কমিশনের সদস্য দাবি করে৷ সিবিআই তদন্তের ভয় দেখিয়ে ১ লক্ষ টাকা দাবি করে। সেই সময় আমার কাছে থাকা ৪০ হাজার টাকা দিই। পরে টাকার জন্য আরও চাপ দিলে পুলিশকে বিষয়টি জানাই। পরে পুলিশ ফাঁদ পেতে ওই যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ৷’’