Digha: কাঁকড়া খেয়ে দিঘায় রহস্যমৃত্যু কলকাতার পর্যটকের

0
1839

দিঘা: পরিবারের সঙ্গে দিঘায় বেড়াতে গিয়েছিলেন। কিন্তু সেই বেড়াতে যাওয়াই কাল হল তার। সেখানকার কাঁকড়া খেয়ে অকালেই প্রান দিতে হল বছর বাইশের যুবক সৌম্যদীপ সিকদারকে। শনিবার দুপুরে এই মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে ওল্ড দিঘায়।

আরও পড়ুনঃ Madan Mitra: বাস ভাড়া বৃদ্ধির পিছনে রয়েছে দলের একাংশের অন্তর্ঘাত, বিস্ফোরক মদন

জানা গিয়েছে, কলকাতার বেহালার বাসিন্দা সৌম্যদীপ সিকদার। শুক্রবার সকালে ২৪ পরগনার জেলার বেহালার সত্যেন রোড এলাকার সৌম্যদীপ সিকদার সহ তার বাকি পরিবারের সদস্যরা ওল্ড দিঘায় বেড়াতে আসেন। শনিবার দুপুরে সেখানকার একটা হোটেলে পরিবারের সঙ্গে খেতে যান সৌম্যদীপ। অর্ডার করেছিলেন নানারকম সি-ফুড।

পরিবারের সদস্যরা সকলেই কাঁকড়া খাচ্ছিল। কিন্তু সৌম্যদীপের এলার্জি সমস্যা ছিল। পরিবারের সদস্যদের বারণ সত্ত্বেও জোরপূর্বক কাঁকড়া খেয়েছিল ওই যুবক। এরপরেই শুরু হয় শারীরিক অস্বস্তি। প্রথমে ঠোঁটে চুলকুনি। তার পর পেটের মধ্যে তোলপাড়। সারা শরীরে জ্বালা অনুভব করে ও শ্বাসকষ্ট শুরু হয়। খাবার খেতে বসে সেখানেই জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন বছর বাইশের যুবক সৌম্যদীপ শিকদার। চমকে ওঠেন সবাই।

আরও পড়ুনঃ Visva Bharati: মেলার মাঠে গাছ লাগান নিয়ে ফের বিতর্কের কেন্দ্রবিন্দুতে বিশ্বভারতী

সঙ্গে সঙ্গে যুবককে উদ্ধার করে নিয়ে যাওয়া হয় দিঘা স্টেট জেনারেল হাসপাতালে। কিন্তু ততক্ষণে সব শেষ। সেখানেই মৃত্যু হয় যুবকের। খাদ্যজনিত অ্যালার্জির কারণে তার মৃত্যু হয়েছে বলে অনুমান চিকিৎসকদের। চিকিৎসকদের কথায়, অ্যালার্জিই অকালে প্রাণ কেড়ে নিল যুবকের।

দিঘা মোহনা থানার ওসি সত্যজিৎ চানক বলেন ” কাঁকড়া খেয়ে পর্যটকে মৃত্যু হয়েছে বলে প্রাথমিক তদন্তে উঠে এসেছে। মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য কাঁথি মহকুমা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। রিপোর্ট এলে মৃত্যুর কারণ পরিষ্কার হবে। অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করে ঘটনার তদন্ত শুরু করা হয়েছে।”

মৃত যুবকের এক আত্মীয় সুস্মিতা মজুমদার বলেন, “ওর অ্যালার্জির সমস্যা ছিল। ওকে কাঁকড়া খাওয়ার জন্য বারণ করেছিলাম। কিন্তু দুপুরে ভাতের সঙ্গে কাঁকড়া- চিংড়ি খেল। তার পরই এমন ঘটনা ঘটল। প্রথমে কামড়ে কোনও অসুবিধা হয়নি। কিন্তু বেশ কিছু ক্ষণ পর এই বিপত্তি ঘটে।”