ভেজাল ভোজ্য তেলের চাহিদায় মাথায় হাত মিল মালিকদের

0
60

সুমন আদক, হাওড়া: পেট্রোলের দাম আকাশ ছোঁয়া৷ তাই পাশাপাশি সব জিনিসের দাম বৃদ্ধি হয়েছে৷ গ্যাসের দাম তো মাস অন্তরই বেড়ে চলেছে৷ বেড়েছে ভোজ্য তেলের দামও৷ একদিকে গ্যাস অন্যদিকে ভোজ্য তেলের মূল্যবৃদ্ধিতে গৃহস্থের হেঁসেলে জ্বলছে আগুন৷ এরই মধ্যে দামের জন্য ঘানির আসল সর্ষে তেলের কদর কমেছে৷ বেড়েছে নকল তেলের কেনাবেঁচা৷ ফলে মাথায় হাত মিল মালিকদের৷

বিভিন্ন সর্ষে তেলের মিলগুলির সমস্যার মূল কারণ, একদিকে যেমন সর্ষের দাম বেড়েছে, পাশাপাশি পাল্লা দিয়ে পরিবহন খরচও বেড়েছে৷ লিটার প্রতি ঘানির তেল ইতি মধ্যেই ২০০ গন্ডি অনেক দিন আগেই পার করেছে। ফলে তেলের যোগান থাকলেও ক্রেতার অভাবে মাথায় হাত এখন মিল কর্তৃপক্ষের।

অন্যদিকে, গোদের ওপর বিষফোঁড়ার মতো বাজারে মিলছে বিভিন্ন ভেজাল সর্ষের তেল, এমনও অভিযোগ রয়েছে। যেখানে সর্ষের সঙ্গে বিভিন্ন রাইস ওয়েল মিশিয়ে দিয়ে বাজারে একটু সস্তায় বিক্রি হচ্ছে। আর ওই তেলের দাম অপেক্ষাকৃত কম হওয়ায় সেদিকেও ঝুঁকছেন অনেক ক্রেতাই।

ফলে ঘানির তেলের সঙ্গে বাজারের ভেজাল তেলের যে প্রতিযোগিতা, তাতে দামের প্রায় ৩০ থেকে ৪০ টাকার ফারাক হয়ে যাচ্ছে। এতেই অনেকটাই পিছিয়ে পড়ছেন মিল মালিকরা। তাই তাদের বিক্রি কমেছে আগের থেকে অনেকটাই। অধিকাংশ মিলে জোগান থাকলেও চাহিদা কম থাকায় ধুঁকছে বিভিন্ন ভোজ্য সর্ষের তেলের ঘানি।