জলপাইগুড়িতে কতটা প্রভাব ফেলছে ঘূর্ণিঝড় সিত্রাং

0
12
cyclone sitrang

জলপাইগুড়ি- দুই ২৪ পরগনা ও পূর্ব মেদিনীপুরে সব থেকে বেশি প্রভাব পড়বে ঘূর্ণিঝড় সিত্রাংয়ের (cyclone sitrang)। ঝড়ের অভিমুখ বাংলাদেশের দিকে ঘুরে গেলেও প্রতিবেশী দেশের এই রাজ্য সিত্রাংয়ের প্রভাব মুক্ত নয়। তবে দক্ষিণবঙ্গের তুলনায় উত্তরবঙ্গ অনেকটাই সিত্রাংয়ের প্রভাব মুক্ত। যদিও সকাল থেকে জলপাইগুড়ির আকাশ জুড়ে কালো মেঘের আনাগোনা চোখে পড়ল।  বইতে দেখা গেল ঝোড়ো হাওয়া।

আরও পড়ুন :ধেয়ে আসছে সিত্রাং, কতখানি বিপজ্জনক এই ঘূর্ণিঝড় , জানাল হাওয়া অফিস

- Advertisement -

উপকূলবর্তী এলাকাগুলিতে ঘূর্ণিঝড় সিত্রাং (sitrang) -এর প্রভাব পড়তে শুরু করেছে এরাজ্যে৷ দক্ষিণ ২৪ পরগনার অন্যতম পর্যটন কেন্দ্র বকখালি। ঘূর্ণিঝড়ের জেরে ইতিমধ্যে ব্লক প্রশাসনের তরফ থেকে জারি করা হয়েছে লাল সতর্কতা। নামখানা ব্লক প্রশাসনের পক্ষ থেকে বকখালি, মৌশুনি দ্বীপ, ফ্রেজারগঞ্জ সহ একাধিক পর্যটক কেন্দ্রগুলিতে ব্লক প্রশাসনের তরফ থেকে পর্যটকদের উদ্দেশ্যে মাইকিং করা হচ্ছে। ইতিমধ্যে বকখালি থেকে পর্যটকদের সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। ব্লক প্রশাসনের তরফ থেকে বকখালি সমুদ্র সৈকতে চলছে মাইকিং। সোমবার সকাল থেকেই জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী ও ব্লক প্রশাসনের বাহিনীর যৌথ উদ্যোগে সমুদ্র সৈকতে চলছে মাইকিং। ঘূর্ণিঝড় মোকাবিলায় ময়দানে নেমে পড়েছে নামখানা ব্লকের বিডিও শান্তনু সিংহ ঠাকুর। তিনি নিজে বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীদের সঙ্গে নিয়ে বকখালি সমুদ্র সৈকত সংলগ্ন এলাকার নদী বাঁধ পরিদর্শনের পাশাপাশি সমুদ্র সৈকতে পর্যটকদের উদ্দেশ্যে সতর্কীকরণের কাজ চালান।

আরও পড়ুন : মুখ্যমন্ত্রীর ছবি সম্বলতি কালীপুজোর শুভেচ্ছা ব্যানার আবর্জনার স্তূপে, উত্তপ্ত নদিয়া

আরও পড়ুন :নিরাপত্তা সংস্থাগুলির কাছে বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে ভারত-পাক সীমান্তে ড্রোনের কার্যকলাপ

সাম্প্রতিক ওয়েদার আপডেট অনুযায়ী স্বস্তির কথা শুনিয়েছে আবহাওয়া দফতর। আলিপুর আবহাওয়া দফতর থেকে জানানো হয়েছে, কলকাতায় আশঙ্কার কোনও কারণ নেই৷ কারণ, ঘূর্ণিঝড় সিত্রাং (cyclone sitrang) বাংলাদেশের ওপর দিয়ে যাচ্ছে৷ তাছাড়া রাজ্যের গা ঘেঁষে এই ঝড় যাচ্ছে না৷ বাংলাদেশের বরিশার একটা অংশ দিয়ে বেরিয়ে যাবে৷ কলকাতায় হাল্কা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাত৷ দমকা হাওয়ার সম্ভবনা৷ তবে ভয়ের কোনও কারণ নেই৷ সুন্দরবন এবং দুই ২৪ পরগণার সমুদ্র উপকূলবর্তী এলাকার একাংশে ক্ষতির আশঙ্কা রয়েছে৷ তাই সংশ্লিষ্ট এলাকার মানুষকে আগেই নিরাপদ দূরত্বে সরানো হয়েছে৷ মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত কোনও কোনও এলাকায় মাঝারি বৃষ্টিপাত হতে পারে৷ সঙ্গে ঝোড়ো হাওয়া বইবে৷ তবে বড়সড় আশঙ্কার কোনও সম্ভবনা নেই৷