দুর্গন্ধ এলকায়, মৃত মায়ের দেহ আগলে বসে ছেলে

0
74

কাঁকসা: গোটা এলাকা জুড়ে দুর্গন্ধ৷ স্থানীয়দের প্রথমে ধারণা হয় যে এলাকায় হয়তো কোনো পশু-পাখি মারা গিয়েছে৷ তার থেকেই দুর্গদ্ধ ছড়িয়েছে এলাকায়৷ কিন্তু পড়ে আসল সত্য নজরে আসতেই সকলে চক্ষু চড়কগাছ হয়ে যায়৷ প্রকাশ্যে আসে মায়ের মৃতদেহ আগলে বসে আছে ছেলে৷

ঘটনাটি কাঁকসার পানাগড় রেলপারের৷ স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বাবা রেলকর্মী ২ বছর আগে মারা গিয়েছেন৷ ভারসাম্যহীন মেয়েও মারা গিয়েছেন৷ তারপর থেকেই মা-ছেলের সংসার৷ ছেলে তাপস বন্দ্যোপাধ্যায় মানসিক ভারসাম্যহীন৷ মা বনশ্রী বন্দ্যোপাধ্যায় পেশায় স্কুল শিক্ষাকা ছিলেন৷

গত তিন দিন ধরে ওই বাড়ি থেকে কোনো সাড়াশব্দ পাওয়া যায়নি৷ এরপর বৃহস্পতিবার তাঁদের বাড়ি থেকে দুর্গন্ধ বেরোতে থাকে৷ তখন স্থানীয়রা তাঁদের বাড়ি যান৷ দেখেন, বনশ্রী দেবীর মৃত দেহ খাটের নিচে রাখা আছে৷ আর ছেলে তাপস খাটের উপরে শুয়ে৷ এরপরই স্থানীয়রা খবর দেয় কাঁকসা থানায়৷

পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করে দুর্গাপুর মহাকুমা হাসপাতালে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠায়৷ উদ্ধার করেছে ভারসাম্যহীন ছেলে তাপসকে৷ ঘটনার জেরে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়৷ প্রসঙ্গত, কয়েকদিন আগেই দুর্গাপুর স্টিল টাউনশিপের সেকেন্ডারি রোডের বাসিন্দা এক মা তাঁর সন্তানের পচাগলা মৃতদেহ আগলে বসেছিলেন৷ সেই ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই ফের প্রকাশ্যে এল কাঁকসার ঘটনা৷